ষষ্ঠ অধ্যায়

ষষ্ঠ অধ্যায়

অংশ-১: পদ্ধতি এবং কার্যপ্রণালী

১০৩। বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত সেবা ক্রয় পদ্ধতি এবং ইহার প্রয়োগ।

(১) বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত সেবা ক্রয়ের জন্য সফল পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে পরামর্শকের কারিগরী প্রস্তাবের গুণগত মানই প্রধান বিবেচ্য বিষয় হিসেবে গণ্য হইবে।

(২) বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে সাধারণভাবে মূল্য-প্রস্তাব যৌক্তিকভাবে বিচার করিতে হইবে, কেননা মূল্যায়নে চুক্তি মূল্যই মুখ্য বিবেচনার বিষয় হইলে আর্থিক ভাবে সাশ্রয়ী পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত সেবার মান প্রায়শ সন্তোষজনক না হওয়ার কারণে বা কম সাশ্রয়ী ব্যবস্থা সুপারিশকৃত হওয়ার কারণে ক্রয়কারী কর্তৃক কাজটি পুনরায় করাইবার প্রয়োজন দেখা দেওয়ায় চূড়ান্ত পরিণতিতে ক্রয়কারীর উপর বর্ধিত ব্যয়ের বোঝা আরোপিত হইতে পারে।

(৩) কোন কাজ সম্পাদনের জন্য আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে পরামর্শক নির্বাচন আবশ্যক হইলে, সেই ক্ষেত্রে ক্রয়কারী উক্ত কাজ সম্পাদনে স্থানীয় পরামর্শক বা বিশেষজ্ঞদের অন্তর্ভুক্তি উৎসাহিত করিবে।

(৪) কাজের প্রকৃতি ও জটিলতা অনুসারে এই বিধিমালায় বর্ণিত বিভিন্ন পদ্ধতি প্রয়োগ করা যাইতে পারে, তবে নিম্নবর্ণিত দুইটি পদ্ধতি অগ্রে বিবেচ্য পদ্ধতি হইবে, এবং নিম্নরূপ শর্তাবলীসহ অনুসৃত হইবেঃ

(ক) গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি- যোগ্যতা ও মূল্যভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি হইবে অগ্রে বিবেচ্য পদ্ধতি, যাহা অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হইবে এবং এই ক্ষেত্রে নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি বিবেচনায় আনিতে হইবে –

(অ) প্রস্তাবের উৎকর্ষ বা মান; এবং
(আ) সেবার মূল্য।

(খ) নির্দিষ্ট বাজেটভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি কেবল মাত্র নিম্নবর্ণিত ক্ষেত্রে যথার্থ হইবে –

(অ) নির্ধারিত কাজ খুবই সাধারণ ধরনের এবং সঠিকভাবে বর্ণনা করা সম্ভব হইলে; এবং
(আ) বাজেট নির্দিষ্ট বা স্থির অংক বিশিষ্ট হইলে।

(৫) ক্রয়কারী উহার ওয়েবসাইটে, যদি থাকে, চুক্তি সম্পাদনের জন্য নির্ব াচিত পরামর্শকের নাম,চুক্তিমূল্য, মেয়াদ এবং চুক্তির পরিধি প্রকাশ করিবে।

(৬) জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পরামর্শ ক নিয়োগের ক্ষেত্রে তফসিল-৯ এ উল্লিখিত নির্দেশনা অনুসরণীয় হইবে।

১০৪। বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাদারী সেবা ক্রয়ের অন্যান্য পদ্ধতি।-

(১) নিম্নবর্ণিত অনুচ্ছেদসমূহে বর্ণিত শর্তাবলী অনুযায়ী ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান অথবা তৎকর্র্তৃক দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার লিখিত পূর্বানুমোদনক্রমে বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে নিম্নবর্ণিত অন্যান্য পদ্ধতিও প্রয়োগ করা যাইতে পারে –

(ক) নিম্নতম ব্যয়-ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি –

(অ) নিরীক্ষা, স্থাপত্য এবং প্রকৌশলগত ডিজাইন ইত্যাদির ন্যায় প্রমিত অথবা রুটিন ধরনের কাজ, যে ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত রীতি (established practices) ও মান বিদ্যমান রহিয়াছে এবং চুক্তিমূল্য তফসিল-২ মোতাবেক স্বল্প পরিমাণের, সেইক্ষেত্রে পরামর্শক নির্বাচনের জন্য নিম্নতম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি যথাযথ হইবে।

(আ) ক্রয়কারী এই পদ্ধতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে বিধি ১০৭ এ বর্ণিত কার্যপ্রণালী অনুসরণ করিবে।

(খ) পরামর্শকের যোগ্যতাভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি –

(অ) ক্ষুদ্র ব্যাপ্তির কার্যসম্পাদনের ক্ষেত্রে যখন পূর্ণ নির্বাচন পদ্ধতি প্রয়োগের ব্যয় যুক্তিযুক্ত নহে, সেইক্ষেত্রে ক্রয়কারী পরামর্শকের গ্যতাভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি প্রয়োগের বিষয়টি বিবেচনা করিতে পারিবে, যথাঃ

(১) প্রকল্পের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের স্তরসমূহে সংক্ষিপ্ত মূল্যায়ন সমীক্ষা ব্যাপক পরিমাণ উত্তরকালীন কাজের (downstream assignment) সংশ্লেষ রহিয়াছে এইরূপ বিকল্প সমাধানসমূহের পুনরীক্ষণ);

(২) কৌশলগত পরিকল্পনার নির্বাহী পর্যালোচনা;

(৩) উচ্চ মানের সংক্ষিপ্তকালীন আইনগত বিশেষায়িত সেবা; এবং

(৪) প্রকল্প পর্যালোচনায় বিশেষজ্ঞ প্যানেলে অংশগ্রহণ।

(আ) ক্রয়কারী এই পদ্ধতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে বিধি ১০৮ এ বর্ণিত কার্যপ্রণালী অনুসরণ করিবে।

(গ) সমাজ সেবামূলক সংগঠন নির্বাচন পদ্ধতিঃ

(অ) সমাজ সেবামূলক সংগঠনসমূহের মধ্য হইতে বেসরকারী সংগঠন (NonGovernrment Organization), অন্যান্য সমাজ সেবামূলক সংস্থা অথবা অলাভজনক সংস্থাসমূহ যাহারা তাহাদের স্থানীয় সমস্যা, সমাজের প্রয়োজন এবং অংশগ্রহণমূলক ভূমিকার কারণে সমাজ উন্নয়ন প্রকল্প প্রণয়ন, ব্যবস্থাপনা এবং বাস্তবায়নে সহায়তা প্রদানের ক্ষেত্রে বিশেষ দক্ষতা অর্জন করিয়াছে, তাহাদের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়নের মাধ্যমে এই পদ্ধতি প্রয়োগ করা যাইতে পারে।

আ) ক্রয়কারী এই পদ্ধতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে বিধি ১০৯ এ বর্ণিত কার্যপ্রণালী অনুসরণ করিবে।

(ঘ) একক উৎস ভিত্তিক পরামর্শক (ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান) নির্বাচন পদ্ধতি –

(১) এই বিধিতে উল্লিখিত ব্যতিক্রমী ক্ষেত্রসমূহে শুধু একক উৎস হইতে নির্বাচন পদ্ধতি প্রয়োগ করা যাইতে পারে, যেহেতু ইহা-

(অ) মান এবং ব্যয়ের ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতার সুফল প্রদান করে না;

(আ) নির্বাচনে স্বচ্ছতার ঘাটতি থাকে, এবং

(ই) অগ্রহণযোগ্য এবং প্রতারণামূলক কার্যকলাপকে উৎসাহিত করিতে পারে।

(ঈ) যখন সরকারি মালিকানাধীন বা বিশেষায়িত কোন সেবা প্রদানকারী যোগ্যতাস¤পন্ন প্রতিষ্ঠান (যথা:- BUET, BIDS, BPATC, BIM, BIAM, ESCB, IIFC, ইত্যাদি)।

(২) কেবল যখন প্রতিযোগিতার তুলনায় এই পদ্ধতি স্পষ্টত- অধিক সুবিধা প্রদান করে, তখনই ইহার প্রয়োগ যথার্থ হইবেঃ

(অ) যেখানে দ্রুত নির্বাচন অত্যাবশ্যক (যেমন-কোন জরুরী প্রয়োজনের ক্ষেত্রে);

(আ) তফসিল-২ এ উল্লিখিত নির্ধারিত মূল্যসীমার মধ্যে ক্ষুদ্র ব্যাপ্তির কাজের ক্ষেত্রে;

(ই) যখন একক কোন ব্যক্তি (individual) বা একটিমাত্র প্রতিষ্ঠান (firm) যোগ্যতায় উত্তীর্ণ বা সংশ্লিষ্ট কাজের বিরল অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ; এবং

৩) কোন পরামর্শক কর্তৃক ইতঃপূর্বে সম্পাদিত কাজের স্বাভাবিক ধারাবাহিকতায় আবশ্যক কাজের ক্ষেত্রেও এই পদ্ধতি যথার্থ হইতে পারে, যদি প্রারম্ভিকভাবে নির্বাচিত পরামর্শকের সেবা বা কাজ অব্যাহত রাখা এবং কারিগরী আঙ্গিক, অর্জিত অভিজ্ঞতা এবং একই পরামর্শককে অব্যাহত পেশাগত দায়বদ্ধতার ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখার স্বার্থে নূতন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের পরিবর্তে উক্ত পরামর্শক কর্তৃক অব্যাহতভাবে কার্যসম্পাদন শ্রেয় হইতে পারে এবং সেইক্ষেত্রে এই পদ্ধতি প্রয়োগ করিয়া প্রারম্ভিকভাবে নির্বাচিত পরামর্শককে পরবর্তী কাজ সম্পাদনের দায়িত্ব অর্পণ করা যাইতে পারে –

তবে শর্ত থাকে যে-

(ক) মূল দায়িত্ব সন্তোষজনকভাবে সম্পাদিত হইয়াছিল; এবং

(খ) মূল প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে কার্যোত্তর সেবার আবশ্যকতার পূর্বাভাস প্রদান করা হইয়াছিল।

(৪) যদি প্রথম চুক্তি সম্পাদন প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে না হইয়া থাকে অথবা উত্তরকালীন কাজ (downstream assignment) ঊল্লেখযোগ্যভাবে অধিক মূল্যের হয়, সেইক্ষেত্রে প্রতিযোগিতামূলক প্রক্রিয়া অনুসৃত হইবে এবং প্রথম দফায় যে পরামর্শক, পরামর্শক কাজ করিয়াছে, প্রতিযোগিতায় আগ্রহ ব্যক্ত করিয়া থাকিলে তাহারাও বিবেচনাযোগ্য হইবে।

(৫) ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান অথবা ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান অপেক্ষা উচ্চতর অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ বিশেষ পরিস্থিতিতে, এবং কেবল যখন নূতন প্রতিযোগিতামূলক প্রক্রিয়া গ্রহণ বাস্তবসম্মত নহে মর্মে প্রতীয়মান হয়, তখন উপ-দফা (৪) এর ব্যতিক্রম বিবেচনা করিতে পারিবে।

(৬) যে ক্ষেত্রে কারিগরী সহায়তা ও পরামর্শ প্রদানে জাতিসংঘের অধীন সংস্থাসমূহ অসাধারণ যোগ্যতাসম্পন্ন, সেইক্ষেত্রে জাতিসংঘের সংস্থাসমূহকে কেস-বাই-কেস ভিত্তিতে আহ্বান জানানো যাইতে পারে।

(৭) ক্রয়কারী এই পদ্ধতি প্রয়োগের ক্ষেত্রে বিধি ১১০ এ বর্ণিত কার্যপ্রণালী অনুসরণ করিবে।

(৮) পরামর্শক সেবা চুক্তি সংক্রান্ত ভেরিয়েশন অর্ডার তফসিল-২ এ বর্ণিত মূল্যসীমা অতিক্রম করিবে না, যদি না উক্ত মূল্যসীমার ঊর্ধ্বের ভেরিয়েশন অর্ডার, বিধি ৭৪(৪) এ প্রদত্ত ব্যাখ্যা অনুসারে, মূল অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের পরবর্তী উচ্চতর অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদিত হইয়া থাকে।

(ঙ) ক্রয়কারী, ডিজাইন প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে বিধি ১১১ তে বর্ণিত কার্যপ্রণালী অনুসরণ করিবে।

(চ) ক্রয়কারী, ব্যক্তিভিত্তিক পরামর্শক নির্বাচন পদ্ধতির অধীন পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে, বিধি ১১২ তে বর্ণিত কার্যপ্রণালী অনুসরণ করিবে।

১০৫। গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অধীন নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে অনুসরণীয় পদ্ধতি নিম্নরুপ, যাহা এই অধ্যায়ের অংশ-২ এ আরও বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করা হইয়াছে –

(ক) দরখাস্তকারীদের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়নের উদ্দেশ্যে বিধির ১১৩ অনুযায়ী আগ্রহী আবেদনকারীদের আহ্বান জানাইয়া আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধ সম্বলিত বিজ্ঞাপন প্রকাশ করিতে হইবে;

(খ) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল প্রণয়নপূর্বক বিধি ১১৭ অনুযায়ী সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত পরামর্শকদের নিকট প্রেরণ করিতে হইবে;

(গ) কারিগরী প্রস্তাব প্রাপ্তির পর প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি প্রস্তাব মূল্যায়নের জন্য সভায় মিলিত হইবে;

(ঘ) নিম্নবর্ণিত পদ্ধতিতে দুই পর্যায়ে প্রস্তাবের মূল্যায়ন করিতে হইবে –

(অ) প্রথমত, কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়ন করিতে হইবে;

(আ) দ্বিতীয়ত, কারিগরী মূল্যায়নে উত্তীর্ণ প্রস্তাবসমূহের আর্থিক প্রস্তাবসমূহ আবেদনকারী অথবা তাঁহাদের প্রতিনিধিদের, যদি উপস্থিত থাকিতে আগ্রহী হন, উপস্থিতিতে খোলা হইবে; এবং

(ই) তৃতীয়ত, কারিগরী এবং আর্থিক দরপত্রের সমন্বিত মূল্যায়ন সম্পাদনের পর বিজয়ী প্রস্তাবের আবেদনকারীকে নিগোসিয়েশনের জন্য আহ্বান করা হইবে।

(২) গুনগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অধীন বুদ্ধিবৃত্তিক ও পেশাগত সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে তফসিল ৩ এর ‘ছ’ অংশে প্রদত্ত ফ্লো-চার্ট এ উল্লিখিত প্রক্রিয়া ও কার্যক্রম অনুসরণীয় হইবে।

১০৬। নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন পদ্ধতি এর অধীন পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) নিম্নবর্ণিত ব্যতিক্রম ব্যতিরেকে, নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী, গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অনুরূপ হইবে-

(ক) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিলে প্রাপ্তিসাধ্য বাজেটের উল্লেখ থাকিবে এবং আবেদনকারীগণকে পৃথক পৃথক খামে উক্ত বাজেটের সীমার মধ্যে তাহাদের সর্বোত্তম কারিগরী ও আর্থিক প্রস্তাব দাখিলের আহবান জানানো হইবে;

(খ) বরাদ্দকৃত বাজেট যাহাতে কাঙ্খিত কাজ পরামর্শক কর্তৃক সম্পাদনের পক্ষে পর্যাপ্ত হয়, সেই লক্ষ্যে যথাসম্ভব পূর্ণাঙ্গ কর্মপরিধি প্রণয়ন করিতে হইবে;

(গ) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিলে আবেদনকারীগণকে বিভিন্ন কর্মকান্ডের ব্যয়ের বিস্তারিত বর্ণনা দাখিল করিবার নির্দেশ প্রদান করিতে হইবে এবং বিস্তারিত বর্ণনা দাখিলে অস্বীকৃতিতে তাঁহাদের প্রস্তাব বাতিল হইবার ঝুঁকি থাকিবে মর্মে বিধান রাখিতে হইবে; এবং

(ঘ) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিলে উল্লেখ থাকিবে যে, প্রস্তাব উন্মুক্ত করার পরে উল্লিখিত বাজেট অতিক্রমকারী সকল প্রস্তাব বাতিল বলিয়া গণ্য হইবে এবং অবশিষ্ট প্রস্তাবসমূহের মধ্য হইতে ক্রমানুসারে পরবর্তী সর্বোচ্চ কারিগরী মান অর্জণকারী আবেদনকারীকে নির্বাচিত এবং চুক্তি নিগোশিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হইবে।

(২) নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন পদ্ধতির আওতায় বুদ্ধিবৃত্তিক ও পেশাগত সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে তফসিল-৩ এর ‘জ’ অংশে প্রদত্ত ফ্লো-চার্ট এ উল্লিখিত প্রক্রিয়া ও কার্যক্রম অনুসরণীয় হইবে।

১০৭। সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি এর অধীন পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) নিম্নবর্ণিত ব্যতিক্রম ব্যতীত, সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অনুরূপ হইবে, যথা-

(ক) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে উল্লেখ করিতে হইবে যে, কারিগরী প্রস্তাবসমূহ মূল্যায়ন এবং আর্থিক প্রস্তাব খোলার পর সর্বনিন্ম দর প্রদানকারী আবেদনকারীকে বিধি ১২২ অনুসারে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হইবে; এবং

(খ) এই পদ্ধতির আওতায় কারিগরী যোগ্যতার সীমা উত্তীর্ণ প্রস্তাবসমূহ সমতুল্য হিসাবে গণ্য করিয়া অতঃপর মূল্যের ভিত্তিতে মূল্যায়িত হইবে।

(২) সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অধীন বুদ্ধিবৃত্তিক ও পেশাগত সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে তফসিল ৩ এর ‘ঝ’ অংশে প্রদত্ত ফ্লো-চার্ট এ উল্লিখিত প্রক্রিয়া ও কার্যক্রম অনুসরণীয় হইবে।

১০৮। পরামর্শকের যোগ্যতাভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি এর অধীন পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) সীমিত কর্ম পরিধি ও মেমোয়ারে অতি ক্ষুদ্র কাজও অতিগুরুত্বপূর্ণ এবং উচ্চ মানের বিশেষায়িত সেবা প্রকৃতির হইতে পারে বিধায়, ক্রয়কারী সম্ভাব্য সর্বোত্তম যোগ্যতা সম্পন্ন পরামর্শক নির্বাচন করিবে।

(২) ক্রয়কারী পরামর্শক নিয়োগের ব্যয় ও সময় হ্রাস করিবার উদ্দেশ্য সাধনের পাশাপাশি সেবার মানের বিষয়টি উপেক্ষা করিবে না।

(৩) ক্রয়কারী সর্বাগ্রে কর্ম পরিধি প্রণয়ন করিবে এবং অত:পর সংশ্লিষ্ট কাজের জন্য পরামর্শকের অভিজ্ঞতা ও যোগ্যতা সংক্রান্ত তথ্যসহ ডাটাবেজ হইতে প্রাপ্ত পরামর্শকদেরকে আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধ জ্ঞাপন করিবে।

(৪) ক্রয়কারী সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়ন করিবে এবং সর্বোচ্চ যোগ্যতা ও পরিচিতির ভিত্তিতে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানসমূহ নির্বাচন করিবে।

(৫) নির্বাচিত প্রতিষ্ঠানসমূহকে সমন্বিত কারিগরী ও আর্থিক প্রস্তাব দাখিল করিবার জন্য আহ্বান জানানো হইবে ও উক্ত কারিগরী প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য হইলে চুক্তি নিগোসিয়েশনের জন্য আহ্বান জানানো হইবে এবং শুধু উক্ত ব্যতিক্রম ব্যতীত পরামর্শকের যোগ্যতাভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অনুরূপ হইবে।

১০৯। সামাজিক সেবামূলক সংগঠন নির্বাচন পদ্ধতি এর অধীন পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) কাজের ব্যাপ্তি এবং সংশ্লিষ্ট কাজ সম্পাদনে আবশ্যক যোগ্যতা ও ব্যবহারিক জ্ঞানের পরিধির আলোকে গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন, নিম্নতম ব্যয়-ভিত্তিক নির্বাচন, নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন অথবা একক উৎস ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতিসমূহের যে কোনটি প্রয়োগ করিয়া সামাজিক সেবামূলক সংগঠনসমূহকে নির্বাচন করা যাইতে পারে।

(২) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে আর্থিক বিষয়াদি ও কার্যাবলীর মূল্য পূর্ব নির্ধারিত থাকে বিধায় নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন পদ্ধতির সংশোধিতরূপ এই পদ্ধতির ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাইবে এবং সেইক্ষেত্রে সামাজিক সেবামূলক সংগঠনসমূহ শুধু কারিগরী প্রস্তাব দাখিল করিবে।

(৩) এই ধরনের নির্বাচন পদ্ধতিতে সাধারণভাবে ব্যবহৃত গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি, সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি, নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন অথবা একক উৎসভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির তুলনায় সামাজিক কার্যক্রম বাস্তবায়ন জনিত অভিজ্ঞতা এবং স্থানীয় বিষয়াদি সম্পর্কিত জ্ঞানের উপর অধিকতর গুরুত্ব আরোপ করা যাইতে পারে।

১১০। একক উৎসভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অধীন পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) সকল পরামর্শকের প্রতি সম-সুযোগ প্রদান এবং ক্রয়কারীর সামগ্রিক স্বার্থে আর্থিক সাশ্রয় ও দক্ষতা নিশ্চিতকরণের উদ্দেশ্য বিবেচনায় রাখিয়া একক উৎসভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি প্রয়োগের যৌক্তিকতা পরীক্ষা করিতে হইবে এবং একক উৎসভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতি প্রয়োগের সিদ্ধান্ত ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের অথবা তাহার নিকট হইতে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কর্র্তৃক লিখিতভাবে অনুমোদিত হইতে হইবে এবং উহা নথিভুক্ত করিতে হইবে।

(২) কোন কাজের ধারাবাহিকতায় উত্তরকালীন কাজ (downstream assignment) অপরিহার্য হইলে, প্রারম্ভিক প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে এই সম্ভাবনা প্রতিফলিত করিতে হইবে।

(৩) এইরূপ উত্তরকালীন কাজের ক্ষেত্রে ক্রয়কারী প্রারম্ভিকভাবে নির্বাচিত পরামর্শককে ক্রয়কারী কর্তৃক প্রণীত কর্মপরিধির ভিত্তিতে কারিগরী এবং আর্থিক প্রস্তাব প্রণয়নের আহবান জানাইবে, যাহা অতঃপর নিগোসিয়েশন করিতে হইবে।

(৪) নির্বাচিত পরামর্শকের অনুকূলে, ক্ষেত্রমত, প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিল অথবা কর্মপরিধি প্রেরণ করা হইবে, এবং কারিগরী ও আর্থিক প্রস্তাব দাখিলের জন্য আহ্বান জানানো হইবে, যাহা প্রাপ্তির পর, একটি ঐকমত্যে পৌঁছাইবার নিমিত্তে প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি এবং নির্বাচিত পরামর্শকের মধ্যে নিগোসিয়েশন অনুষ্ঠিত হইবে, যাহাতে কারিগরী বা আর্থিক বিষয়াদি নির্বিশেষে পরামর্শকের প্রস্তাবের সকল বিষয় একত্রে আলোচিত হইবে।

(৫) জাতিসংঘের অধীনস্থ কোন সংস্থা এই পদ্ধতিতে পরামর্শক হিসাবে নিয়োজিত হইলে উক্ত সংস্থা এবং উহার কর্মচারীগণকে সরকার কর্র্তৃক প্রদত্ত সুবিধা ও দায়মুক্তিসমূহ প্রতিফলিত করিয়া বিশেষ ধরনের চুক্তিপত্র ব্যবহার করিতে হইবে।

(৬) জাতিসংঘের অধীনস্থ কোন সংস্থাকে এই পদ্ধতিতে নিয়োজিত করার ক্ষেত্রে প্রমিত প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিল প্রয়োজন অনুসারে পুনর্বিন্যস্ত করা যাইবে।

(৬ক) উপ-বিধি (৪) অনুযায়ী প্রক্রিয়া গ্রহণের মাধ্যমে সরকারি মালিকানাধীন বা বিশেষায়িত কোন সেবা প্রদানকারী যোগ্যতাস¤পন্ন প্রতিষ্ঠান হইতে বুদ্ধিবৃত্তিক ও পেশাগত সেবা ক্রয় করা যাইবে।

(৭) একক উৎস ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির অধীন বুদ্ধিবৃত্তিক ও পেশাগত সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে তফসিল ৩ এর ‘ঞ’ অংশে প্রদত্ত ফ্লো-চার্ট এ উল্লিখিত প্রক্রিয়া ও কার্যক্রম অনুসরণীয় হইবে।

১১১। ডিজাইন প্রতিযোগিতা (Design Contest) এর ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) ডিজাইন প্রতিযোগিতা এমন একটি নির্বাচন পদ্ধতি যাহার মাধ্যমে সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানসমূহ (সাধারণত: স্থাপত্য শিল্প সংক্রান্ত প্রতিষ্ঠানসমূহ) এর নিকট হইতে ভৌত প্রকল্প, যথা- স্মৃতিসৌধ, গবেষণা কেন্দ্র, দাপ্তরিক প্রধান কার্যালয় অথবা যানবাহন ছাউনী ইত্যাদির ধারণাপ্রসূত ডিজাইন (conceptual design) দাখিলের জন্য আহ্বান জানানো হইয়া থাকে।

(২) ডিজাইন প্রতিযোগিতার প্রধান উপাদান হিসাবে ধারণাগত ডিজাইনে প্রকল্পের কারিগরী বৈশিষ্ট্যসমূহসহ উহার নান্দনিক বিষয়াদি থাযথভাবে পরিস্ফুটিত করিতে হইবে।

(৩) ক্রয়কারী, অভিজ্ঞতা, সামর্থ্য এবং সুনামের ভিত্তিতে, সম্ভাব্য আবেদনকারীদের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়ন করিবে, তবে একটি যথাযথ সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়নে সমস্যা থাকিলে ক্রয়কারী ডিজাইন প্রতিযোগিতার বিজ্ঞাপন ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে উপযুক্ত প্রতিষ্ঠানসমূহকে আগ্রহ ব্যক্তকরণের আহবান জানাইবে।

(৪) ক্রয়কারী সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীগণের নিকট একটি আহ্বানপত্র, প্রস্তাব উপাত্ত শীটে প্রকল্পের বিশেষ বৈশিষ্ট্যসমূহের ঊল্লেখসহ প্রস্তাবকদের জন্য প্রকল্প সংক্রান্ত তথ্য, ডিজাইন প্রস্তুতকরণ সংক্রান্ত নির্দেশনা এবং প্রযোজ্য অন্যান্য তথ্য-উপাত্ত সম্বলিত কর্মপরিধিসহ ডিজাইন প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল প্রেরণ করিবে।

(৫) মূল্যায়ন নির্ণায়কে নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি অন্তর্ভুক্ত থাকিতে পারে যথা, উদ্ভাবন, নান্দনিক উপাদান, পারিপার্শ্বিক অবস্থার সহিত যথাযথ অভিযোজ্যতা, প্রাপ্তিসাধ্য ভৌতসীমার দক্ষ ব্যবহার, সম্ভাব্য ব্যবহারকারীদের জন্য আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপনের পরিকল্পনা, জ্বালানী সাশ্রয়ী ব্যবস্থা এবং পরিবেশ-বান্ধব উপাদানসমূহের অন্তর্ভুক্তি, রাজস্ব আয় বৃদ্ধির সম্ভাবনা, যদি থাকে, এবং প্রাক্কলিত নির্মাণ ব্যয়।

(৬) ডিজাইন প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল অনুসারে সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত প্রত্যেক আবেদনকারী প্রাথমিক ধারণাগত ডিজাইন এবং সংশ্লিষ্ট প্রাক্কলিত ব্যয় সম্বলিত সীলমোহরকৃত প্রস্তাব দাখিল করিবে।

(৭) সকল প্রস্তাব প্রাপ্তি এবং উন্মুক্তকরণের পর প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ কমিটি সকল প্রস্তাব বিধি ৩২ অনুসারে নিরাপদ হেফাজতে রাখার জন্য একটি বন্ধ বাক্সে ক্রয়কারীর নিকট প্রেরণ করিবে।

(৮) প্রস্তাবসমূহ প্রাপ্তির পর, প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি ডিজাইন প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে বর্ণিত প্রধান মূল্যায়ন নির্ণায়ক (broad evaluation criteria) অনুসারে প্রস্তাবিত ডিজাইনসমূহ মূল্যায়ন করিবে এবং বিধি ১১৯ অনুসারে মূল্যায়ন প্রতিবেদন দাখিল করিবে।

(৯) ধারণাগত ডিজাইন প্রারম্ভিক প্রকৃতির হওয়ায়, প্রকল্প অব্যাহত থাকিলে বিজয়ী ডিজাইনের ভিত্তিতে বিস্তারিত প্রকৌশল ও নির্মাণ কার্যের ডিজাইন, কার্যের পরিমাণগত হিসাব সম্বলিত তফসিল, কারিগরী বিনির্দেশ ও দরপত্র দলিল এবং নির্মাণ কার্যের তত্ত্বাবধান করিবার জন্য চুক্তিপত্র প্রণয়ন করিতে হইবে।

(১০) বিজয়ী আবেদনকারীকে একটি সমন্বিত আর্থিক ও কারিগরী প্রস্তাব দাখিল করিবার জন্য অনুরোধ করিতে হইবে এবং কারিগরী প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য বিবেচিত হইলে, তাঁহাকে নিগোসিয়েশনের জন্য আহবান জানাইতে হইবে।

(১১) ডিজাইন প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে বিজয়ী আবেদনকারীর জন্য পুরস্কারের সংস্থান থাকিতে পারে, যাহা প্রকল্পের পরবর্তী পর্যায় বা পর্যায়সমূহের ডিজাইন বা ডিজাইন সমূহের জন্য চুক্তি এবং তৎসহ একটি পূর্ব-নির্ধারিত আর্থিক অংকের আকারে হইতে পারে এবং ইহা ছাড়াও, মূল্যায়নে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী আবেদনকারীদের জন্য, বিজয়ী আবেদনকারীর নিকটবর্তী অবস্থানে থাকা সাপেক্ষে, তাহাদের নিষ্পন্ন ব্যয়ের আংশিক পরিপূরণকল্পে ক্ষুদ্রতর অংকের আর্থিক পুরস্কারের ব্যবস্থাও রাখা যাইতে পারে।

(১২) ডিজাইন প্রতিযোগিতার সুনির্দিষ্ট প্রয়োজন পূরণের লক্ষ্যে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত আদর্শ দলিল পুনর্বিন্যস্ত করা যাইবে।

১১২। ব্যক্তিভিত্তিক পরামর্শক নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে অনুসরণীয় কার্যপ্রণালী।-

(১) যে সকল কাজের জন্য ব্যক্তির যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ, এবং বিশেষজ্ঞদল বা অতিরিক্ত পেশাগত সহায়তার প্রয়োজন নাই, সেইক্ষেত্রে আইনের ধারা ৩৮ মোতাবেক ব্যক্তিভিত্তিক পরামর্শক নিয়োগ করা যাইতে পারে;

(২) আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসম্বলিত বিজ্ঞপ্তির প্রেক্ষিতে আগ্রহব্যক্তকারী অথবা ক্রয়কারী কর্তৃক সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে প্রাপ্ত প্রার্র্থীদের যোগ্যতা এবং অভিজ্ঞতার তুলনামূলক যাচাইয়ের ভিত্তিতে এই পদ্ধতিতে ব্যক্তি পরামর্শক নিয়োগ করা যাইতে পারে।

(৩) ব্যক্তিগণ তাহাদের আগ্রহব্যক্তকরণপত্রে তাহাদের প্রয়োজনীয় যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা এবং কাজ সম্পাদনে পূর্ণ সামর্থ্যরে প্রমাণ প্রদর্শন করিবে।

(৪) শিক্ষাগত যোগ্যতা, কার্যক্ষেত্রের অভিজ্ঞতা এবং, প্রযোজ্য হইলে, স্থানীয় ভাষা ও সংস্কৃতি সংক্রান্ত জ্ঞানের ভিত্তিতে ব্যক্তিবর্গের যোগ্যতা নিরূপণ করা হইবে।

(৫) আবেদনকারীদের যোগ্যতা মূল্যায়নের পর সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত প্রার্থীদের সাক্ষাৎকারের জন্য আহবান করা যাইতে পারে এবং নির্বাচিত প্রার্থীকে পারিশ্রমিক, পুনর্ভরণযোগ্য ব্যয়, ক্রয়কারীর পক্ষ হইতে প্রাপ্তব্য সুবিধাদি ইত্যাদি বিষয়ে নিগোসিয়েশনের জন্য এবং পরবর্তী পর্যায়ে চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য আহবান জানানো হইবে।

(৬) ক্রয়কারী যুক্তিযুক্ত বাজেটের মধ্যে দক্ষতার সহিত সবচাইতে যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচন করার লক্ষ্যে বিকল্প প্রার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিক তালিকা প্রস্তুত করিতে পারিবে।

(৭) সমন্বয়, পরিচালনা অথবা যৌথভাবে দায়িত্ব সম্পাদন অসুবিধাজনক হইলে কোন ব্যাপক কার্য সম্পাদনের লক্ষ্যে অধিক সংখ্যক স্বতন্ত্র বা একক পরামর্শক নিয়োজিতকরণ পরিহার করিতে হইবে এবং সেইক্ষেত্রে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান বা প্রতিষ্ঠানসমূহকে নিয়োগ করা অধিকতর সুবিধাজনক হইবে; এবং

(৮) বাংলাদেশী নাগরিকদের ব্যক্তিভিত্তিক পরামর্শক হিসাবে নির্বাচনের লক্ষ্যে তফসিল-৯ এর অংশ-খ এবং অংশ-গ নির্দেশাবলী অনুসরণীয় হইবে।

(৯) সরকারী এবং স্বায়ত্বশাসিত, আধা-স্বায়ত্বশাসিত, কর্পোরেশন বা বিধিবদ্ধ সংস্থা অথবা স্থানীয় সংস্থার কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ব্যক্তিভিত্তিক পরামর্শক হিসাবে নিয়োগের ক্ষেত্রে তফসিল-৯ এর অংশ-ঘ তে উল্লিখিত শর্তাবলী প্রযোজ্য হইবে।

(১০) এই বিধিতে যাহা কিছুই থাকুক না কেন, নিম্নবর্ণিত পরিস্থিতিতে ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের পূর্বানুমোদন সাপেক্ষে আগ্রহ ব্যক্তকরণপত্র আহবান ব্যাতিরেকে ব্যক্তি ভিত্তিক পরামর্শক নিয়োগ করা যাইবে, যথা-

(ক) যদি কার্যটি পূর্ব কাজের ধারাবাহিকতায় হয়;

(খ) যদি কাজের সময় ৬ (ছয়) মাসের কম হয়;

(গ) প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারণে জরুরী ভিত্তিতে সম্পাদনের প্রয়োজন হয়; এবং

(ঘ) যে কাজের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিই একমাত্র যোগ্য পরামর্শক বিবেচিত হয়।

(১১) উপ-বিধি ১০ অনুযায়ী (ঘ) ব্যাতীত পরামর্শক নির্বাচনের ক্ষেত্রে আগ্রহী পরামর্শকগণের মধ্য হইতে অন্যুন ৩ (তিন) জনের জীবন-বৃত্তান্ত সংগ্রহপূর্বক তাহাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও কর্মঅভিজ্ঞতা বিবেচনাক্রমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিতে হইবে।

 

অংশ-২: বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত সেবা ক্রয়ের জন্য আগ্রহ-ব্যক্তকরণের অনুরোধ এবং প্রস্তাবের প্রক্রিয়াকরণ

১১৩। আগ্রহব্যক্তকরণপত্র দাখিল।-

(১) সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়নের উদ্দেশ্যে আগ্রহী আবেদনকারীদের স¤পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি প্রাপ্তির লক্ষ্যে আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসম্বলিত বিজ্ঞাপন প্রণয়ন করিতে হইবে এবং পরবর্তী পর্যায়ে সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীদের বরাবরে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিল প্রেরণ করিতে হইবে;

(২) সম্ভাব্য আবেদনকারীদের আগ্রহব্যক্তকরণ পত্র দাখিলের জন্য তফসিল-২ এ বর্ণিত সময় প্রদান করিয়া বিধি ৯০ অনুসারে আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসম্বলিত বিজ্ঞাপন প্রকাশ করিতে হইবে।

(৩) আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসসম্বলিত বিজ্ঞাপনে নিম্নবর্ণিত তথ্যাদি সন্নিবেশিত থাকিতে হইবেঃ

(ক) ক্রয়কারীর নাম ও ঠিকানা ;
(খ) প্রয়োজনীয় বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত সেবার পরিসরের বিস্তারিত বর্ণনাসহ সংশ্লিষ্ট কাজের বিবরণ;
(গ) বর্ণিত কাজ সম্পাদনের জন্য যোগ্যতার প্রমাণস্বরূপ সম্ভাব্য আবেদনকারীদের অভিজ্ঞতা, সম্পদ, পেশাদার জনবল এবং সেবা প্রদানের সামর্থ্য;
(ঘ) তাহাদের লিখিত আগ্রহব্যক্তকরণ পত্র দাখিলের স্থান এবং সময়সীমা; এবং
(ঙ) অন্যান্য তথ্যাদি যাহা ক্রয়কারীর বিবেচনায় সম্ভাব্য আবেদনকারীদের জন্য সহায়ক হইবে।

(৪) আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসম্বলিত বিজ্ঞাপনে উল্লেখথাকিবে যে, আগ্রহব্যক্তকরণ পত্র শুধু একটি স্থানে দাখিল করিতে হইবে।

(৫) আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসসম্বলিত বিজ্ঞাপন অনুসারে সম্ভাব্য আবেদনকারী নির্দিষ্ট দিন, সময় এবং স্থানে আগ্রহব্যক্তকরণ পত্র দাখিল করিবে।

(৬) উচ্চ মানের সেবা প্রাপ্তির সহায়ক হিসাবে স্থানীয় এবং বৈদেশিক প্রতিষ্ঠানসমূহের সমন্বয়ে যৌথ-উদ্যোগ, কনসোর্টিয়াম বা এসোসিয়েশন গঠনের বিষয়টি বিবেচিত হইলে আগ্রহব্যক্তকরণের অনুরোধসম্বলিত বিজ্ঞাপনে এইরূপ উল্লেখ থাকিবে যে, বিধি ৫৪ অনুসারে গঠিত এইরূপ যৌথ উদ্যোগ গঠন ক্রয়কারী কর্তৃক উৎসাহিত করা হইবে –

তবে শর্ত থাকে যে, ক্রয়কারী প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধসম্বলিত দলিলে এইরূপ যৌথ উদ্যোগ গঠন বাধ্যতামূলক করিতে পারিবে না।

১১৪। আবেদনপত্র উন্মুক্তকরণ।-

(১) আগ্রহব্যক্তকরণ সংক্রান্ত আবেদনপত্র কুরিয়ার, ডাক, ফ্যাক্স অথবা ই-মেইলের মাধ্যমে দাখিল করা যাইতে পারে।

(২) আগ্রহব্যক্তকরণ সংক্রান্ত আবেদনপত্র প্রকাশ্যে উন্মুক্ত করা হইবে না।

(৩) আগ্রহব্যক্তকরণ সংক্রান্ত আবেদনপত্র দাখিলের জন্য নির্দিষ্ট সর্বশেষ সময় উত্তীর্ণ হইবার অব্যবহিত পর আবেদনপত্র উন্মুক্তকরণ এবং সকল আবেদনকারীর নাম এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট তথ্যাদি লিপিবদ্ধ করিবার জন্য ক্রয়কারী বিধি ৭ এর বিধান মোতাবেক গঠিত প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ কমিটির সভা আহবান করিবে।

(৪) প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ কমিটি আবেদনদকারীদের তথ্যাদি লিপিবদ্ধ করিবার পর প্রাপ্ত আবেদনসমূহ এবং লিপিবদ্ধ তথ্য প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির বরাবরে পেশ করিবে।

১১৫। আবেদনপত্র মূল্যায়ন এবং সংক্ষিপ্ত তালিকা অনুমোদন, ইত্যাদি।-

(১) বিধি ৮ অনুসারে গঠিত প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি, সংশ্লিষ্ট কাজ সম্পাদনের জন্য যোগ্যতম আবেদনকারীদের সমন্বয়ে সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়ন করিবার উদ্দেশ্যে, আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধে বর্ণিত নির্ণায়ক সমূহের ভিত্তিতে প্রাপ্ত আবেদনপত্রসমূহ মূল্যায়ন করিবে।

(২) সংশ্লিষ্ট কাজের জন্য আবেদকারীদের উপযুক্ততা, আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধসম্বলিত বিজ্ঞাপনে উল্লিখিত নিম্নবর্ণিত তথ্যের ভিত্তিতে সর্বোৎকৃষ্ট (excellent) অতি উত্তম (very good) এবং উত্তম (good) এবং অনুত্তম (poor) এইরূপ যোগ্যতার মাপকাঠি প্রয়োগ করিয়া (কিছু নম্বরের ভিত্তিতে নহে), সর্বোচ্চ যোগ্যতাসম্পন্ন আবেদনকারীদের মূল্যায়ন সম্পন্ন করা হইবেঃ

(ক) সংস্থার সুযোগ-সুবিধা এবং দক্ষতার ক্ষেত্রসমূহ নির্দেশপূর্বক দাখিলকৃত ব্রোশিয়ার;
(খ) একই ধরনের স¤পাদিত কাজের বিবরণ ;
(গ) একই ধরনের কর্ম পরিবেশ ও পরিস্থিতিতে পরিচালিত কাজের অভিজ্ঞতা;
(ঘ) আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানের জনবলের মধ্যে যথাযথ অভিজ্ঞতা ও পেশাগত যোগ্যতাসম্পন্ন জনবল এবং কাজ সম্পাদনে পর্যাপ্ত সম্পদের প্রাপ্যতা; এবং
(ঙ) আর্থিক সঙ্গতি ও ব্যবস্থাপনাগত সামর্থ্য।

(৩) উপ-বিধি (২) এর অধীন মূল্যায়ন সম্পাদন করত- প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধ বর্ণিত শর্তাদি পূরণ করিয়াছে, এবং প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির বিবেচনায় আলোচ্য কার্য সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা পূরণে যথাযথ ও পর্যাপ্ত সামর্থ্য প্রদর্শন করিয়াছে, এইরূপ কমপক্ষে ৪ (চার) টি এবং ৭ (সাত) টির অধিক নহে এমন সংখ্যক আবেদনকারী সমন্বয়ে সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়ন করিবে এবং সুপারিশ সহকারে উহার প্রতিবেদন ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নিকট অনুমোদনের জন্য পেশ করিবে।

(৩ক) উপ-বিধি (৩) এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) প্রকল্পে Transaction Advisor নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রণীত সংক্ষিপ্ত তালিকায় আবেদনকারীর সংখ্যা উম্মুক্ত থাকিবে এবং সংক্ষিপ্ত তালিকার কার্যকারিতা উহা প্রণীত হইবার তারিখ হইতে ৩ (তিন) বৎসরের অধিক হইবে না।

(৪) ক্রয়কারী কর্তৃক যদি এইরূপ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলটি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে জারী করা হইবে, তাহা হইলে কোন একক দেশ হইতে অনধিক ২ (দুই) টি এবং উন্নয়নশীল দেশ হইতে কমপক্ষে ১ (এক) টি সংস্থা সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত হইতে হইবে।

(৫) মূল্যায়নের পর যদি সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৪ (চার) এর কম হয়, তাহা হইলে প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি যাচাইয়ের উদ্দেশ্যে উক্ত কাজ পুনরীক্ষণ করিবে-

(ক) আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধের ছকটি সঠিক ছিল কিনা;
(খ) ইহা ক্রয়কারীর প্রয়োজনীয়তা পূরণ করে কিনা; এবং
(গ) বিধি ৯০ অনুযায়ী যথাযথভাবে ইহার বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হইয়াছিল কি না।

(৬) উপ-বিধি (৫) এ বর্ণিত বিষয়াদি যাচাইক্রমে সঠিক পাওয়া গেলে এবং অন্যান্য বিষয় এই বিধিমালার সঙ্গতিপূর্ণ হইয়া থাকিলে, প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি ৪ (চার) টির কম প্রতিষ্ঠান সম্বলিত সংক্ষিপ্ত তালিকা অনুমোদনের সুপারিশসহ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নিকট পেশ করিতে পারিবে।

(৭) বৃহত্তর প্রতিযোগিতা কাম্য হইলে, ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান সংশ্লিষ্ট কাজটি পরামর্শকদের নিকট অধিকতর আকর্ষণীয় করিবার লক্ষ্যে উহাতে যথাযথ সংশোধন করিয়া আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধ অধিকতর ব্যাপকভাবে পুনঃপ্রচারের নির্দেশ প্রদান করিবে –

তবে শর্ত থাকে যে, ক্রয়কারীগণ পুনঃবিজ্ঞপ্তি প্রদানের বিষয়টি নিয়মিত বিষয় হিসাবে গণ্য করিবে না, বরং প্রথম দফার বিজ্ঞাপনেই যাহাতে যথাযথ সংক্ষিপ্ত তালিকা চূড়ান্তকরণ সম্পন্ন হয়, তদুদ্দেশ্যে যথাযথভাবে আগ্রহ ব্যক্তকরণের অনুরোধ বিজ্ঞাপন প্রচারে সচেষ্ট থাকিবে।

(৮) উপ বিধি (৭) এর শর্ত মোতাবেক পুনঃবিজ্ঞাপন প্রচারের পরেও যদি মূল্যায়নকৃত সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীর সংখ্যা ৪ (চার) টির কম হয়, সেইক্ষেত্রে সংক্ষিপ্ত তালিকা চূড়ান্ত বলিয়া বিবেচনা করিতে হইবে এবং সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত স্বল্পসংখ্যক আবেদনকারীর নিকটই প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল প্রেরণ করিতে হইবে।

(৯) ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান অথবা তাঁহার দ্বারা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তার অনুমোদন প্রাপ্তির পর, আগ্রহ ব্যক্ত করিয়াছে এইরূপ সকল আবেদনকারীকে সংক্ষিপ্ত তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়া বা না হওয়ার বিষয়ে অবহিত করা হইবে।

১১৬। পরামর্শ সেবার কর্মপরিধি প্রস্তুতকরণ।-

(১) প্রস্তাব প্রস্তুতিতে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে পরামর্শকদের কর্মপরিধি নির্ধারণের সময় আবেদনকারীদেরকে সাধারণত- নিম্নবর্ণিত তথ্য সরবরাহ করিতে হইবে-

(ক) প্রকল্পের পটভূমি এবং উহার পারিপার্শ্বিক যে সাধারণ অবস্থার মধ্যে সংশ্লিষ্ট কাজ সম্পাদন করিতে হইবে;
(খ) পরামর্শক সেবার উদ্দেশ্য ও ব্যাপ্তি;
(গ) কাজ সম্পাদনের মেয়াদ;
(ঘ) সংশ্লিষ্ট কাজ সম্পাদনের জন্য আবশ্যক সেবা ও জরিপ কাজ এবং প্রত্যাশিত ফলাফল (output);
(ঙ) বিদ্যমান কোন প্রাসঙ্গিক সমীক্ষায় প্রাপ্ত বিশেষ তথ্য ও মৌলিক তথ্য এবং তথ্যাদি প্রাপ্তির স্থান;
(চ) যে সকল ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা বা প্রশিক্ষণ হস্তান্তরের বিষয়টি অন্যতম উদ্দেশ্য, সে সকল ক্ষেত্রে আবেদনকারীকে প্রয়োজনীয় সম্পদের প্রাক্কলন প্রস্তুত করার জন্য প্রশিক্ষণযোগ্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীর সংখ্যা, প্রশিক্ষণের সময়সূচী ও বিষয়বস্তু, যদি জানা থাকে, সম্পর্কে একটি সুনির্দিষ্ট রূপরেখা প্রদান করিতে হইবে;
(ছ) ক্রয়কারী বা ব্যবহারকারী বা সুবিধাভোগী সংস্থা কর্তৃক পরামর্শককে প্রদেয় সুবিধাদি ও সহায়তা; এবং
(জ) প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থাদি।

(২) কর্মপরিধি অতি-বিস্তৃত ও অনমনীয় হইবে না এবং আবেদনকারীদেরকে তাহাদের নিজস্ব কার্য সম্পাদন পদ্ধতির প্রস্তাব দাখিল করিবার, এবং ক্রয়কারী কর্তৃক পূর্ব নির্ধারিত কর্মপরিধি সম্পর্কে মতামত প্রদানের, সুযোগ প্রদান করা যাইবে।

(৩) কর্মপরিধিতে পরামর্শক এবং ক্রয়কারী বা সুবিধাভোগীর স্ব-স্ব দায়িত্ব স্পষ্টভাবে ঊল্লেখ করিতে হইবে।

(৪) কর্মপরিধিতে বর্ণিত কাজের ব্যাপ্তি বাজেট বরাদ্দের সহিত সংগতিপূর্ণ হইতে হইবে।

১১৭। প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল প্রণয়ন ও জারী।-

(১) ক্রয়কারী, সরকার কর্তৃক জারীকৃত আদর্শ প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল অনুসরণে, প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল প্রণয়নপূর্বক সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীদের নিকট বিতরণ করিবে।

(২) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে নিম্নবর্ণিত তথ্যাদি অন্তর্ভুক্ত থাকিবে, যথা —

(ক) ক্রয়কারীর নাম ও ঠিকানা;
(খ) কর্মপরিধি আকারে প্রয়োজনীয় কাজের বিবরণ;
(গ) গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন, নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন এবং সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন প্রক্রিয়ার আওতায় এবং প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে বর্ণিত নির্দেশ অনুসারে প্রত্যেক আবেদনকারী কারিগরী এবং আর্থিক প্রস্তাব যথাযথভাবে চিহ্নিত পৃথক দুইটি খামে সীলগালা করিয়া অন্য একটি বহিঃস্থ খামে উক্ত খাম দুইটি স্থাপন ও সীলগালা করিয়া দাখিল করিবার আবশ্যকতা;
(ঘ) সীলগালাকরণ এবং চিহ্নিতকরণের নির্দেশাবলী প্রতিপালনে ব্যর্থতার ফলে দরপ্রস্তাব পূর্বাহ্নেই প্রকাশিত হইয়া যাইতে পারে, যাহার জন্য আবেদনকারী এককভাবে এবং সম্পূর্ণভাবে দায়ী থাকিবে এবং ইহার ফলে তাহার প্রস্তাব অগ্রহণযোগ্য হিসাবে ঘোষিত হইবার কারণ সূচিত হইতে পারে মর্মে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে সু¯পষ্ট নির্দেশনা;
(ঙ) বর্তমানে পরামর্শক সেবা প্রদানে নিয়োজিত পরামর্শকগণ কর্তৃক সম্পাদনীয় কাজের সহিত ভবিষ্যতে সম্ভাব্য স্বার্থের সংঘাত দেখা দিতে পারে বিধায় তাহারা সংশ্লিষ্ট পরামর্শক সেবার ফলস্বরূপ উদ্ভূত বা উহার সহিত সম্পর্কিত পণ্য এবং সংশ্লিষ্ট সেবা, কার্য বা ভৌত সেবাসমূহ ক্রয়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা হইতে বিরত থাকিবে মর্মে অঙ্গিকার;
(চ) পূর্বে কোন কাজ সম্পাদন করিয়াছে এইরূপ কোন আবেদনকারীর ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে স্বার্থের সংঘাত যুক্তিযুক্তভাবে উদ্ভূত হইতে পারে এইরূপ সম্ভাবনা বিদ্যমান রহিয়াছে বলিয়া বিবেচিত হইলে, অনুরূপ আবেদনকারীও পরবর্তী কোন কাজে অংশগ্রহণ করা হইতে বিরত থাকিবে মর্মে অঙ্গিকার;
(ছ) প্রস্তাব দাখিলের সময়সীমা ও স্থান, এবং যে সকল আবেদনকারীর প্রস্তাব আর্থিক মূল্যায়নের জন্য গৃহীত হইবে, তাঁহাদের আর্থিক প্রস্তাব উন্মুক্তকরণের সময়, তারিখ এবং স্থানসহ আবেদনকারীগণকে অবহিতকরণের প্রক্রিয়া; এবং
(জ) ব্যবহৃতব্য চুক্তিপত্রের আদর্শ ছক, যাহাতে পরামর্শক এবং ক্রয়কারী উভয়ের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য পারস্পরিক দায়-দায়িত্ব বর্ণিত থাকিবে।

(৩) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের সহিত নিম্নবর্ণিত কাগজাদি অন্তর্ভুক্ত করিতে হইবে, যথা-

(ক) সংক্ষিপ্ত তালিকাসহ আহ্বানপত্র;
(খ) ক্ষেত্রমত, আবেদনকারী অথবা পরামর্শকের প্রতি নির্দেশনা;
(গ) প্রস্তাব উপাত্ত সীট;
(ঘ) চুক্তির সাধারণ শর্তাদি;
(ঙ) চুক্তির বিশেষ শর্তাদি;
(চ) আদর্শ চুক্তির ছক;
(ছ) কর্মপরিধি; এবং
(জ) সংযোজনী।

(৪) ক্রয়কারী প্রতিটি ক্ষেত্রে সর্বাধিক উপযোগী আদর্শ প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল প্রয়োগ করিবে।

(৫) ক্রয়কারী সাধারণত আদর্শ প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের কোনরূপ পরিবর্তন করিবে না, তবে সংশ্লিষ্ট কাজ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় প্রস্তাব উপাত্ত সীট এবং চুক্তির বিশেষ শর্তাবলীতে অন্তর্ভুক্ত করিতে পারিবে।

(৬) আহ্বানপত্রে (Letter of Invitation) পরামর্শ সেবার জন্য চুক্তি সম্পাদনে ক্রয়কারীর আগ্রহ, তহবিলের উৎস, উপকারভোগী প্রতিষ্ঠানের বিস্তারিত তথ্য, সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত পরামর্শকগণের তালিকা, প্রস্তাব দাখিলের তারিখ, সময় এবং স্থানের উল্লেখথাকিবে।

(৭) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে অন্তর্ভুক্ত করিতে হইবে এইরূপ দলিলাদির তালিকা ক্রয়কারী আহ্বানপত্রে সন্নিবেশিত করিবে।

(৮) আবেদনকারীগণকে গ্রহণযোগ্য প্রস্তাব প্রণয়নে সহায়তার জন্য আবেদনকারী বা পরামর্শকের জন্য নির্দেশনায় ক্রয়কারী সকল তথ্য অন্তর্ভুক্ত করিবে এবং নির্বাচন প্রক্রিয়াকে যথাসম্ভব সুষ্ঠু ও স্বচছ করিবার উদ্দেশ্যে প্রস্তাব দাখিলের পদ্ধতি এবং মূল্যায়ন নির্ণায়কসমূহ সম্পর্কে তথ্যাদি প্রদান করিবে।

(৯) যদি সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত কোন পরামর্শক আলোচ্য কাজের ক্ষেত্রে ইতঃপূর্বে কোন সেবা প্রদানের কারণে প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকে, সেইক্ষেত্রে যে সকল তথ্য জ্ঞাত হওয়ার কারণে উক্ত পরামর্শক উক্তরূপ সুবিধাজনক অবস্থানে রহিয়াছে, সেই সকল তথ্য (যেমন -ডিজাইন, ষ্টাডি রিপোর্ট, কৌশলপত্র, ইত্যাদি) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের সঙ্গে অন্যান্য প্রতিযোগী পরামর্শদের প্রদান করিতে হইবে।

(১০) কাজ সম্পাদনের জটিলতা বিবেচনায়, তফসিল-২ এ বর্ণিত সময়সীমা অনুসারে, আবেদনকারী অথবা পরামর্শকের জন্য নির্দেশনায় প্রস্তাব বলবৎ থাকার মেয়াদ নির্দিষ্ট করিতে হইবে –

তবে ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান অথবা তাহার নিকট হইতে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কর্তৃক বিশেষ কোন ক্রয়ের প্রয়োজনীয়তা বিবেচনায় স্বল্পতর বা দীর্ঘতর মেয়াদ নির্ধারণ করা যাইতে পারে।

(১১) ক্রয়কারী সংশ্লিষ্ট কাজ সম্পাদনের জন্য যথাযথ বাজেট বরাদ্দের উদ্দেশ্যে একটি বাস্তবভিত্তিক ব্যয় প্রাক্কলন প্রস্তুত করিবে।

(১২) ক্রয়কারী, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, সংশ্লিষ্ট কাজের অন্তর্ভুক্ত কর্মকান্ডকে বিভিন্ন অংশে বিভক্ত করিয়া প্রতিটি অংশের জন্য প্রয়োজনীয় পেশাগত ফি, পুনর্ভরণযোগ্য ব্যয় এবং অন্যান্য আনুষঙ্গিক ব্যয়ের সংস্থান করিবে।

(১৩) কাজ সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় শ্রম-মাস (staff-month), বস্তুগত সুবিধা (logistic support) এবং ভৌত ইনপুটস (physical inputs) সহ আবশ্যক স¤পদের পরিমাণ নির্ণয়ে ক্রয়কারী কর্তৃক নির্ণীত পরিমাণের ভিত্তিতে আবেদনকারী দরের প্রাক্কলন প্রণয়ন করিবে।

(১৪) ব্যয় সাধারণত দুইটি প্রধান শ্রেণীতে বিভক্ত করা যাইতে পারেঃ

(ক) চুক্তির ধরণ অনুযায়ী ফি বা পারিশ্রমিক; এবং
(খ) সময়-ভিত্তিক চুক্তির ক্ষেত্রে দালিলিক প্রমাণ দাখিল সাপেক্ষে পুনর্ভরণযোগ্য ব্যয়, যথা, বিমান ভাড়া, দৈনিক ভাতা, ভিসা ব্যয়, চিকিৎসা ব্যয়, যাতায়াত ব্যয়, অফিস ভাড়া, যানবাহন ক্রয়, দাপ্তরিক সরঞ্জামাদি, দাপ্তরিক আসবাবপত্র ইত্যাদি।

(১৫) আবশ্যক বিশেষ জ্ঞান ও দক্ষতা এবং আন্তর্জাতিক ও জাতীয় পরামর্শকদের প্রত্যাশিত অনুপাত অনুসারে শ্রম-মাসের বাস্তব-ভিত্তিক প্রাক্কলিত ব্যয় নিরূপণ করিতে হইবে।

(১৬) বিধি (১৪)(খ) তে উল্লিখিত পুনর্র্ভরণযোগ্য ব্যয়ের আইটেমসমূহ কেবলমাত্র উদাহরণ হিসাবে প্রযোজ্য, এবং কর্মপরিধি, বিশেষত-, ক্রয়কারী বা ব্যবহারকারী অথবা উপকারভোগী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক পরামর্শক প্রতিষ্ঠানকে প্রদত্ত সুবিধাদির ক্ষেত্রে ভিন্নতর হইতে পারে।

উদাহরণ।− ক্রয়কারী বা ব্যবহারকারী অথবা উপকারভোগী প্রতিষ্ঠান যদি অফিস সামগ্রী, যানবাহন বা উভয়েরই সংস্থান করিতে পারে, সেইক্ষেত্রে উক্ত আইটেমসমূহ আবেদনকারী কর্তৃক ব্যয়ের প্রাক্কলনে অন্তর্ভুক্তির প্রয়োজন হইবে না।

(১৭) কাজ সম্পাদনকারী জনবলের জন্য নির্ধারিত ফি বা পারিশ্রমিকই হইবে আবেদনকারী কর্র্তৃক উহার প্রস্তাবে উদ্ধৃত একমাত্র প্রকৃত অপরিবর্তনীয় ব্যয়।

(১৮) কতিপয় নির্দিষ্ট সেবা, যথা, প্রাক-জাহাজীকরণ পরিদর্শন, ক্রয় এজেন্সির সেবা, প্রতিষ্ঠান বা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ, বিরাস্ট্রীয়করণ বা টুইনিং (privatisation or twinning) এর ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন প্রদানের জন্য, ক্রয়কারী সিপিটিইউ কর্তৃক জারীকৃত আদর্শ প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের ছকসমূহ পুনর্বিন্যস্ত করিতে পারিবে।

(১৯) তফসিল-২ অনুসারে আবেদনকারীগণকে প্রস্তাব প্রণয়নের জন্য ন্যূনতম সময় প্রদান করিতে হইবে।

(২০) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে যে সময়কালের মধ্যে আবেদনকারী কর্তৃক কোন বিষয়ে ¯পষ্টীকরণের জন্য অনুরোধ জ্ঞাপন করিলে তাহা ক্রয়কারী কর্তৃক গ্রহণীয় হইবে এবং উহার প্রয়োজনীয় জবাব প্রদান করা হইবে, তাহা উল্লেখ করিতে হইবে।

(২১) প্রস্তাব দাখিলের আহবান সম্বলিত দলিল সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীদের নিকট ই-মেইল বা কুরিয়ার ডাক যোগে প্রেরণ করা যাইতে পারে।

(২২) আবেদনকারী কর্তৃক যাচিত কোন ¯পষ্টীকরণের ধরণ বিবেচনায়, প্রস্তাব দাখিলের সর্বশেষ সময় বর্ধিত করার প্রয়োজন হইতে পারে এবং সেইক্ষেত্রে স্পষ্টীকরণ বিষয়টিও সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত সকল আবেদনকারীকে অবহিত করিতে হইবে।

(২৩) কোন বিষয় ¯পষ্টীকরণের উদ্দেশ্যে প্রাক-প্রস্তাব সভা অনুষ্ঠানের কোন অভিপ্রায় থাকিলে, উক্ত প্রাক-প্রস্তাব সভার তারিখ ও সময় প্রস্তাব উপাত্ত সীটে উল্লেখ করিতে হইবে।

(২৪) গুণগত মান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির আওতায় প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে মূল্যায়নের নির্ণায়ক নির্ধারণ করিবার সময় নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি বিবেচনা করিতে হইবে; যথাঃ

তবে শর্ত থাকে যে, গুণ এবং ব্যয়ের ক্ষেত্রে গুরুত্ব যথাক্রমে শতকরা ৯০ (নব্বই) এবং শতকরা ১০ (দশ) অনুপাত নির্ধারণ করিবার ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সুপারিশ গ্রহণ করিতে হইবে;

(ক) নির্বাচনের মানদণ্ড হিসাবে মূল্য বিচক্ষণতার সহিত বিবেচনা করিতে হইবে, এবং প্রস্তাব মূল্যায়নের ক্ষেত্রে উহা আবেদনকারীর যোগ্যতা ও প্রস্তাবের মান অপেক্ষা তুলনামূলকভাবে কম গুরুত্ব সম্পন্ন হইবে;
(খ) কাজ সম্পাদনের প্রকৃতি অনুসারে মান এবং মূল্যের মধ্যে তুলনামূলক গুরুত্ব প্রয়োগ করিতে হইবে, এবং, বহুমাত্রিক, সম্ভাব্যতা যাচাই এবং ব্যবস্থাপনাগত সমীক্ষা, যেখানে পরামর্শকের বুদ্ধিবৃত্তিক এবং পেশাগত যোগ্যতাই সর্বোচচ বিবেচ্য, সেইক্ষেত্রে গুণ এবং ব্যয়ের ক্ষেত্রে যথাক্রমে সর্বোচ্চ গুরুত্ব শতকরা ৮০ (আশি) এবং ২০ (বিশ) নির্ধারণ করা যাইতে পারে
(গ) কারিগরী মূল্যায়নে কমপক্ষে শতকরা ৭০ (সত্তর) নম্বর অর্জন করিতে হইবে;
(ঘ) যে সকল কারিগরী প্রস্তাব প্রয়োজনীয় ন্যূনতম নম্বর অর্জন করিবে না, সেই প্রস্তাবসমূহ অনুপযুক্ত বিবেচনায় উহাদের আর্থিক প্রস্তাবসমূহ উন্মুক্ত না করিয়া আবেদনকারীর নিকট ফেরৎ প্রদান করা হইবে;
(ঙ) কতিপয় নির্দিষ্ট প্রমিত সেবা, যেমন: প্রাক-জাহাজীকরণ এবং অন্যান্য পরিদর্শন, ক্রয় সেবা, বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ, এবং অনুরূপ কার্যের ক্ষেত্রে, যেখানে সাধারণত ব্যবসায়িক বা বিধিবদ্ধ মান দ্বারা পর্যাপ্ত গুণগত মান নিশ্চিত করা হয়, সেইক্ষেত্রে মান এবং মূল্যের তুলনামূলক বিভাজন যথাক্রমে ৬৫ এবং ৩৫, ৬০ এবং ৪০, ৫৫ এবং ৪৫ এমন কি ৫০ এবং ৫০ এর মত নিম্নসীমাতে নির্ধারণ করা যাইতে পারে এবং এইরূপ ক্ষেত্রে সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতিও প্রাসঙ্গিক হইতে পারে; এবং
(চ) মূল্য মূল্যায়নের একটি নির্ণায়ক বিধায়, প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে কর্মসম্পাদনের জন্য ক্রয়কারী, ব্যবহারকারী অথবা উপকারভোগী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক বরাদ্দকৃত বাজেট অথবা নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন পদ্ধতি ব্যতীত দাপ্তরিক প্রাক্কলন উল্লেখ করা হইবে না, তবে আবেদনকারী কর্তৃক কার্যসম্পাদনে প্রয়োজনীয় বিবেচিত ব্যয়-প্রাক্কলন প্রণয়নে সহায়তার উদ্দেশ্যে প্রধান পেশাদার জনবল, শ্রম-মাস, শ্রম-সপ্তাহ বা শ্রম-দিন আকারে শ্রম-সময় প্রকাশ করা হইবে।

(২৫) কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়নে নিম্নবর্ণিত পাঁচটি সাধারণ নির্ণায়ক ব্যবহার করা যাইতে পারে –

(ক) আবেদনকারীদের সুনির্দিষ্ট অভিজ্ঞতা;
(খ) কর্মপরিধির প্রেক্ষাপটে প্রস্তাবিত বাস্তবায়ন-পদ্ধতি ও কর্ম-পরিকল্পনার পর্যাপ্ততা;
(গ) কাজ সম্পাদনের জন্য মুখ্য পেশাদার ব্যাক্তিবর্গের যোগ্যতা ও সামর্থ্য;
(ঘ) প্রযুক্তি হস্তান্তর কার্যক্রমের যথোপযুক্ততা অর্থাৎ যেক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অন্তর্ভুক্ত; এবং
(ঙ) স্থানীয় অংশগ্রহণ অর্থাৎ প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, মুখ্য পেশাদার ব্যক্তিবর্গের নিয়োগের ক্ষেত্রে স্থানীয় নাগরিকদের অন্তর্ভুক্তি।

(২৬) উপ-বিধি (২৫) এর অধীন প্রতি নির্ণায়কের বিপরীতে নম্বর নির্ধারণের ক্ষেত্রে ক্রয়কারী নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি বিবেচনা করিবে –

(ক) অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে প্রদেয় নম্বর তুলনামূলকভাবে কম হইবে, কেননা সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্তিকালেই আবেদনকারীর অভিজ্ঞতা বিবেচিত হইয়াছে;
(খ) জটিল ধরণের কাজ সম্পাদন, যথা-বহুমাত্রিক, সম্ভাব্যতা যাচাই এবং ব্যবস্থাপনাগত সমীক্ষা, ইত্যাদির ক্ষেত্রে বাস্তবায়ন-পদ্ধতি ও কর্ম-পরিকল্পনার ক্ষেত্রে অধিক নম্বর প্রদত্ত হইবে; অনুরূপভাবে যে সমস্ত ক্ষেত্রে কাজ সম্পাদনের জন্য কর্মীবৃন্দের অবদান অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ, সেইক্ষেত্রে মুখ্য পেশাদার (key profetionls) ব্যক্তিবর্গের জন্যও অধিক নম্বর প্রদানযোগ্য হইবে;
(গ) কোন কোন কাজ সম্পাদনের ক্ষেত্রে জ্ঞান হস্তান্তর অধিক গুরুত্বপূর্ণ বিবেচিত হইলে, সেইক্ষেত্রে উহার প্রতিফলন হিসাবে উক্ত নির্ণায়ককে অধিক নম্বর প্রদান করিতে হইবে; এবং
(ঘ) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে জারী করা হইলে, মুখ্য পেশাদার হিসাবে বাংলাদেশী পরামর্শক অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে নম্বর প্রদান করা যাইতে পারে, যাহার সর্বোচ্চ পরিমাণ হইবে ১০(দশ)।

(২৭) বিভিন্ন প্রকার কাজ সম্পাদনের জন্য এই বিধির অধীন প্রধান নির্ণায়কসমূহের মধ্যে পয়েন্ট বন্টন –

 সুনির্দিষ্ট অভিজ্ঞতাকর্মসম্পাদন পদ্ধতি এবং কর্ম পরিকল্পনাপ্রধান কর্মীবৃন্দের যোগ্যতাজ্ঞান হস্তান্তর (যে ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহন (যে ক্ষেত্রে প্রযোজ্য)মোট নম্বর
পথ নির্দেশ৫-১০২০-৩৫৪০-৬০০-২০০-১০১০০
কর্মের ধরণ
১। কারিগরি সহায়তা/প্রশিক্ষণ৫-১০২০-৩৫৫০-৬০০-২০০-১০১০০
২। বিনিয়োগ পূর্ব সমীক্ষা৫-১০৩৫-৫০৪০-৫০০-১০০-১০১০০
৩। ডিজাইন৫-১০৩০-৪৫৪০-৫০০-১০০-১০১০০
৪। বাস্তবায়ন/ তত্ত্বাবধান৫-১০২০-৫০৫০-৬০০-১০০-১০১০০

১১৮। প্রস্তাব দাখিল এবং উন্মুক্তকরণ।-

(১) আবেদনকারী প্রস্তাব দাখিলের সময় নিম্নবর্ণিত বিষয়গুলি বিবেচনা করিবে-

(ক) সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত হয় নাই এইরূপ কোন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের সহিত সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত কোন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ক্রয়কারীর অনুমোদন ব্যতীত যৌথ উদ্যোগ গঠন করিতে পারিবে না;
(খ) সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত কোন আবেদনকারী একের অধিক প্রস্তাবে অংশ গ্রহণ করিতে পারিবে না;
(গ) মুখ্য পেশাদার ব্যাক্তিবর্গের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের স্থায়ী কর্মী হইবে বা উহার সহিত দীর্ঘ মেয়াদে এবং একত্রে কাজ করার মতো সুস্থিত অবস্থা (stable working relationship) বজায় থাকা বাঞ্চনীয় হইবে;
(ঘ) জীবন বৃত্তান্ত প্রত্যেক পরামর্শক কর্তৃক তারিখসহ স্বাক্ষরিত হইতে হইবে;
(ঙ) জীবন বৃত্তান্ত সঠিক হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করিতে হইবে এবং মুখ্য পেশাদার ব্যাক্তিবর্গের প্রতিশ্রূতি (commitment) প্রস্তাবের সহিত দাখিল করিতে হইবে;
(চ) মনোনীত সহ-পরামর্শক ব্যতীত, মুখ্য কোন পেশাদার ব্যক্তিকে একের অধিক প্রতিষ্ঠান (firm) কর্তৃক প্রস্তাব করা যাইবে না; এবং
(ছ) এই উপ-ধারায় বর্ণিত গুরুত্বপূর্ণ শর্তাদি পূরণে ব্যর্থতার কারণে প্রস্তাব বাতিলযোগ্য হইবে।

(২) ক্রয়কারী, কারিগরী প্রস্তাব উন্মুক্তকরণের জন্য, বিধি ৭ অনুসারে গঠিত প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ কমিটির সভা আহবান করিবে।

(৩) কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়ন সমাপ্ত হওয়া পর্যন্ত ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান তাঁহার নিকট আর্থিক প্রস্তাব তাঁহার নিরাপদ হেফাজতে বন্ধ অবস্থায় সংরক্ষণ করিবেন।

(৪) প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ কমিটি ক্রয়কারীর মাধ্যমে কারিগরী প্রস্তাব এবং উন্মুক্তকরণ সংক্রান্ত রেকর্ডপত্র একটি বন্ধ বাক্সে বিধি ৮ অনুসারে গঠিত প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির নিকট মূল্যায়নের জন্য প্রেরণ করিবে।

 

অংশ-৩: প্রস্তাব মূল্যায়ন, নিগোসিয়েশন এবং প্রক্রিয়ার পরিসমাপ্তি 

১১৯। কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়ন ।-

(১) আইন, এই বিধিমালা এবং প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল অনুসারে প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি সকল কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়ন করিবে।

(২) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির কোন সদস্যের সহিত ব্যবসায়িক বা অন্যবিধ ঘনিষ্ঠ স¤পর্কযুক্ত কোন আবেদনকারীর নিকট হইতে প্রস্তাব গৃহীত বা আহবান করা হইলে, স্বার্থের সংঘাত এড়াইবার উদ্দেশ্যে উক্ত সদস্য বা সদস্যদের পরিবর্তে অন্য কোন সদস্য বা সদস্যদেরকে নিয়োগ করিতে হইবে।

(৩) গুনগতমান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন, নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন, সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির আওতায় মূল্যায়নের প্রথম পর্যায়ে কেবলমাত্র কারিগরী প্রস্তাব সমূহের পরীক্ষণ এবং মূল্যায়ন সম্পন্ন করা হইবে এবং প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা মোতাবেক প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক উক্ত মূল্যায়ন সম্পন্ন করিতে হইবে।

(৪) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি প্রতিটি প্রস্তাব কর্মপরিধির প্রতি রেসপনসিভ কিনা উহার আলোকে মূল্যায়ন করিবে, এবং কোন প্রস্তাব কর্মপরিধির গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমূহ প্রতিপালন না করিলে, বা প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে বর্ণিত ন্যূনতম কারিগরী স্কোর অর্জনে ব্যর্থ হইলে, উক্ত প্রস্তাব বিবেচনার অযোগ্য বা নন-রেসপনসিভ বলিয়া বিবেচিত হইবে, এবং উহা বাতিল করা হইবে।

(৫) কারিগরী প্রস্তাবসমূহ গৃহীত এবং উন্মুক্তকরণের পরে, পরামর্শকদেরকে তাহাদের প্রস্তাবসমূহের সারবস্তু, উহাতে উল্লিখিত প্রধান কর্মীবৃন্দ এবং অন্য কোনরূপ পরিবর্তন সাধন করিবার জন্য নির্দেশ দেওয়া যাইবে না বা পরিবর্তনের অনুমতি প্রদান করা যাইবে না।

(৬) একটিমাত্র প্রস্তাব ন্যূনতম কারিগরী নম্বর অর্জনে সক্ষম হইলে, সেইক্ষেত্রে ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান বা তৎকর্র্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বা অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের (যদি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নীচের ধাপের কর্মকর্তা হন) অনুমোদনক্রমে আর্থিক প্রস্তাব উন্মুক্ত এবং পরীক্ষা করা যাইবে।

(৭) দরপত্র দাখিলের নির্ধারিত তারিখ এবং সময়ে যদি একটিমাত্র প্রস্তাব দাখিল করা হইয়া থাকে, সেইক্ষেত্রে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে উল্লিখিত সময় প্রদান করিয়া সকল সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীকে প্রস্তাব দাখিলের জন্য আহবান করা সাপেক্ষে, ক্রয়কারী উক্ত একক প্রস্তাবটিই মূল্যায়ন কমিটির বরাবরে অগ্রবর্তী করিবে।

(৮) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির সকল সদস্য পৃথকভাবে প্রস্তাব মূল্যায়ন করিবেন, অতঃপর প্রত্যেক প্রস্তাবের অনুকূলে কমিটির সদস্যগণ কর্তৃক প্রদত্ত নম্বরের গড় নির্ণয় করিয়া সংশ্লিষ্ট প্রস্তাবের নম্বর নির্ধারণ করিতে হইবে।

(৯) কোন মূল্যায়নকারী কর্তৃক প্রদত্ত নম্বরসমূহের মধ্যে ব্যাপক পার্থক্যের ক্ষেত্রে, কমিটির সভাপতি বিষয়টি বিবেচনায় আনিয়া সংশ্লিষ্ট মূল্যায়নকারীকে তাঁহার প্রদত্ত নম্বরের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যার আহ্বান জানাইবেন –

তবে শর্ত থাকে যে-

(ক) তাঁহার ব্যাখ্যার যৌক্তিক ভিত্তি না থাকিলে তাহার মূল্যায়ন প্রত্যাখ্যান করা হইবে; এবং
(খ) তাঁহার ব্যাখ্যার যৌক্তিক ভিত্তি থাকিলে এবং তিনি উক্ত বিষয়ে একমাত্র অভিজ্ঞ ব্যক্তি বলিয়া প্রতীয়মান হইলে তাঁহাকে সদস্য হিসাবে অন্তর্ভুক্ত করিয়া একটি নূতন প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি গঠন করিতে হইবে ।

(১০) সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়নে বিবেচিত হইবার জন্য প্রয়োজনীয় ন্যূনতম কারিগরী নম্বর অর্জনকারী আবেদনকারীদের চিহ্নিতকরণের উদ্দেশ্যে প্রত্যেক প্রস্তাবে প্রদত্ত কারিগরী নম্বর প্রদর্শনপূর্বক একটি প্রস্তাব মূল্যায়ন প্রতিবেদন প্রণয়ন করিতে হইবে।

(১১) বিধি ৩৬ এর বিধান অনুসরণক্রমে কারিগরী মূল্যায়ন প্রতিবেদন ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান বা তৎকর্র্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের (যদি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নীচের ধাপের কর্মকর্তা হন) নিকট দাখিল করা হইবেঃ

তবে শর্ত থাকে এর বিধান অনুসরণক্রমে কারিগরি যদি ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের উচ্চতর কোন কর্মকর্তা হন তাহা হইলে, বিধি-১০ উপ-বিধি (১) এর দফা (ঘ) এর ব্যতিক্রমে ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের অব্যবহিত নিচের ধাপের কর্মকর্তা প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করিবেন।

১২০। আর্থিক প্রস্তাব মূল্যায়ন।-

(১) ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান বা তাহার নিকট হইতে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ (যদি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নীচের ধাপের কর্মকর্তা হন) কর্তৃক কারিগরী মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুমোদনের পর যে সকল আবেদনকারী প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের বর্ণনামতে ন্যূনতম কারিগরী স্কোর অর্জন করিয়াছে, তাহাদিগকে আর্থিক প্রস্তাবের প্রকাশ্য উন্মুক্তকরণ সভায় উপস্থিত থাকিবার জন্য আহ্বান জানানো হইবে।

(২) প্রকাশ্য প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ সভায় প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি ন্যূনতম কারিগরী স্কোর অর্জনকারী প্রত্যেক প্রস্তাবের ব্যয় সহকারে প্রাপ্ত কারিগরী স্কোর ঘোষণা করিবে।

(৩) গাণিতিক শুদ্ধতা নিরূপণের জন্য আর্থিক প্রস্তাবসমূহ পরীক্ষা করা হইবে এবং গণনায় কোনরূপ ভুল থাকিলে তাহা আবেদনকারীকে অবহিত করা হইবে।

(৪) কার্যক্রমসমূহের ব্যয় উল্লেখআবশ্যিক হইলে, কারিগরী প্রস্তাবে বর্ণিত কোন কার্যক্রমের ব্যয় উল্লেখ করা না হইয়া থাকিলেও, উক্ত ব্যয় অন্যান্য কার্যক্রমের বা আইটেমে অন্তর্ভুক্ত হইয়াছে বলিয়া ধরিয়া লওয়া হইবে।

(৫) আর্থিক প্রস্তাবে কোন কর্মকান্ড এবং লাইন আইটেমের পরিমাণ কারিগরী প্রস্তাব অপেক্ষা ভিন্নভাবে উল্লেখ করা হইলে, মূল্যায়ন কমিটি আর্থিক প্রস্তাবে প্রদর্শিত উক্ত পরিমাণ এইরূপে সংশোধন করিবে যাহাতে উহা কারিগরী প্রস্তাবের সহিত সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়।

উদাহরণ।− যদি কারিগরী প্রস্তাবে উল্লেখ থাকে যে, দলনেতা কর্ম সম্পাদনের জন্য নির্ধারিত স্থানে ১২ (বার) মাস উপস্থিত থাকিবেন, কিন্তু আর্থিক প্রস্তাবে ৮ (আট) মাসের উল্লেখ রহিয়াছে, এইরূপ ক্ষেত্রে প্রস্তাবিত দর-মূল্যের সহিত বাকী সময়ের আনুপাতিক পারিশ্রমিকের পরিমাণ যোগ করিয়া মূল্য সমন্বয় করা হইবে।

(৬) আবেদনকারী যে সকল পুনর্ভরণযোগ্য আইটেমের মূল্য উল্লেখ করিবে, সেই সকল আইটেম গাণিতিক শুদ্ধতা এবং বিষয়বস্তু উভয় আঙ্গিকেই পরীক্ষিত হইবে এবং যদি ইহা নির্ণীত হয় যে, এমন কোন আইটেম প্রস্তাবে অন্তর্ভুক্ত হইয়াছে যাহা পরামর্শকের প্রয়োজন নাই, সেইক্ষেত্রে উক্ত আইটেম প্রস্তাব হইতে বাদ দেওয়া হইবে এবং আর্থিক মূল্যায়নে তাহা গণ্য করা হইবে না।

উদাহরণ।− পরামর্শক অফিস ভাড়ার পরিমাণ উল্লেখকরিয়াছে অথচ প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে উল্লেখকরা হইয়াছে যে ক্রয়কারী বা ব্যবহারকারী বা উপকারভোগী প্রতিষ্ঠান ইহার সংস্থান করিবে।

(৭) থোক (lump-sump) চুক্তির ক্ষেত্রে আর্থিক প্রস্তাবের কোন সংশোধনী প্রযোজ্য হইবে না।

১২১। গুণগত ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতিতে সম্মিলিত বিবেচনায় কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়ন ।-

(১) নিম্নবর্ণিত উদাহরণ অনুসারে সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়নে কারিগরী স্কোর নির্ধারণ করিতে হইবে –

উদাহরণ।− যদি কোন কারিগরী প্রস্তাব ৯০ নম্বর প্রাপ্ত হয়, এবং তুলনামূলক গুরুত্ব শতকরা ৮০ হইয়া থাকে, সেইক্ষেত্রে উক্ত তুলনামূলক গুরুত্ব প্রয়োগ করত- এই প্রস্তাবের কারিগরী নম্বর হইবে ৯০ এর ৮০% = ৭২

(২) প্রত্যেক প্রস্তাবের আর্থিক স্কোর এইরূপ নির্ধারিত হইবে যে সর্বনিন্ম মূল্যায়িত আর্থিক প্রস্তাবকে ১০০ নম্বর দেওয়া হইবে এবং অন্যান্য প্রস্তাবের ক্ষেত্রে আনুপাতিক ক্রমহ্রাসমান হারে নম্বর দেওয়া হইবে; সর্বনিম্ন আর্থিক প্রস্তাবের তুলনায় যে হারে অন্যান্যদের আর্থিক প্রস্তাব অধিক হইবে, সেই হারে প্রদেয় নম্বর হ্রাস পাইতে থাকিবে।

উদাহরণ।− যদি সর্বনিন্ম আর্থিক প্রস্তাবের দর ১ মিলিয়ন টাকা হয়, তাহা হইলে উহাতে প্রদত্ত আর্থিক নম্বর হইবে ১০০ (সর্ব্বোচ) এবং অতঃপর নির্ণেয় আর্থিক স্কোর হইবে নিম্নরূপ-

প্রস্তাবদরনম্বরগুরুত্বস্কোর
সর্বনিম্ন আর্থিক প্রস্তাবটাকা ১.০ মিলিয়ন১০০২০%২০
পরবর্তী উচ্চতর আর্থিক প্রস্তাবটাকা ১.২ মিলিয়ন৮৩.৩২০%১৬.৬
পরবর্তী উচ্চতর আর্থিক প্রস্তাবটাকা ১.৫ মিলিয়ন৬৬.৬২০%১৩.৩২

(৩) কারিগরী স্কোরের সহিত আর্থিক স্কোর যোগ করিয়া সম্মিলিত স্কোর পাওয়া যাইবে, এবং সর্বোচ্চ সম্মিলিত স্কোর অর্জনকারী পরামর্শককে চুক্তি নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইতে হইবে।

১২২। নিগোসিয়েশন।-

(১) প্রস্তাবসমূহের মূল্যায়ন সম্পাদনের পর প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি-

(ক) গুণগতমান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে, সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়ন প্রতিবেদন পর্যালোচনান্তে সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়নে সর্বোচচ স্কোর অর্জনকারী পরামর্শককে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে;
(খ) নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচনের ক্ষেত্রে, উক্ত বাজেট সীমার মধ্যে সর্বোচ্চ কারিগরী স্কোর অর্জনকারী পরামর্শককে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে;
(গ) সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে, কারিগরী যোগ্যতার মানদণ্ডে উত্তীর্ণ সর্বনিন্ম ব্যয় উদ্ধৃতকারী পরামর্শককে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে।

(২) ক্রয়কারী কৃতকার্য পরামর্শককে তাহার প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য হইয়াছে মর্মে অবহিত করিবে এবং চুক্তি নিগোসিয়েশনের জন্য এইরূপ দিন ধার্য করিবে যাহাতে প্রস্তাবের বৈধতার মেয়াদ সমাপ্ত হইবার পূর্বেই চুক্তি বলবৎ হইতে পারে।

(৩) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি চুক্তি স্বাক্ষরের নিমিত্তে কৃতকার্য পরামর্শককের সহিত নেগোসিয়েশনের সময় প্রস্তাবের শুধু নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি আলোচনা করিবে –

(ক) কর্মপরিধি বাস্তবায়ন-পদ্ধতি;
(খ) কর্ম পরিকল্পনা এবং বিভিন্ন কাজের বিস্তারিত সময়সূচী;
(গ) সংগঠনকরণ এবং কর্মীবৃন্দ নিয়োজিতকরণ;
(ঘ) প্রশিক্ষণ ইনপুট, যদি প্রশিক্ষণ প্রধান উপাদান হয়;
(ঙ) গ্রাহক বা ক্রয়কারীর ইনপুট;
(চ) সময় ভিত্তিক চুক্তির ক্ষেত্রে পুনর্ভরণযোগ্য ব্যয়; এবং
(ছ) প্রস্তাবিত চুক্তি মূল্য।

(৪) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি জনবলের পারিশ্রমিক হিসাবে উদ্ধৃত দরের বিষয়ে কোন পরিবর্তনের ইচ্ছা প্রকাশ করিবে না অথবা কোন ধরনের পরিবর্তন অনুমোদন করিবেন না, যেক্ষেত্রে আবেদনকারী কর্তৃক প্রস্তাবিত ব্যয় মূল্যায়নে একটি উপাদান হিসাবে ব্যবহৃত হয়।

(৫) মূল্যায়নের সময় যদি প্রতিভাত হয় যে, প্রধান কোন কর্মী প্রস্তাবিত কাজ সম্পাদনে উপযুক্ত নহে, তাহা হইলে প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানকে উক্ত প্রধান কর্মীর স্থলে অন্য কোন উপযুক্ত কর্মী নিয়োজিত করিবার নির্দেশ দিতে পারিবে।

(৬) যদি প্রস্তাবের বৈধতার মেয়াদ বৃদ্ধিই কোন প্রধান কর্মী প্রাপ্তিসাধ্য না হওয়ার কারণ হইয়া থাকে, তাহা হইলে সমতুল্য বা অধিকতর যোগ্যতাসম্পন্ন কোন কর্মীকে তাঁহার স্থলাভিষিক্ত করা যাইবে।

(৭) নিগোসিয়েশনের সময় ক্রয়কারী কর্তৃক প্রদেয় ইনপুট ও সুবিধাদি (inputs and facilities) সুস্পষ্টভাবে নিরূপণ করিতে হইবে।

(৮) নিগোসিয়েশনে কর্মপরিধি সম্পর্কে আলোচনা অন্তর্ভুক্ত থাকিবে, কিন্তু মূল কর্মপরিধিতে কোন ঊল্লেখযোগ্য পরিবর্তন সাধন করা যাইবে না, যাহাতে নিগোসিয়েশনের ন্যায়নিষ্ঠতা এবং কারিগরী মূল্যায়ন প্রতিবেদনের বিষয়বস্তু ও সিদ্ধান্ত সম্পর্কে কোন প্রশ্ন উত্থাপিত না হয়।

(৯) বাজেট বরাদ্দের সঙ্গে সঙ্গতি রক্ষার উদ্দেশ্যে কাজের ইনপুট ঊল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা যাইবে না।

১২৩। নিগোশিয়েশনে ব্যর্থতা এবং সকল প্রস্তাব বাতিলকরণ।-

(১) যদি নিগোসিয়েশন ব্যর্থ হয় এবং সকল প্রস্তাব অনুপযুক্ত ও নন-রেসপনসিভ হয়, তাহা হইলে ক্রয়কারী, ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের অনুমোদন গ্রহণপূর্বক নিম্নবর্ণিত কারণে উক্ত প্রস্তাবসমূহ বাতিল করিতে পারিবে –

(ক) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের বিপরীতে দাখিলকৃত প্র স্তাবে গুরুতর ঘাটতি থাকিলে; এবং
(খ) প্রাক্কলিত বাজেটের চাইতে দাখিলকৃত মূল্য প্রস্তাব ঊল্লেখযোগ্যভাবে অধিক এবং নিগোসিয়েশনের সময় উক্ত পার্থক্য দূর করা সম্ভব না হইলে।

উদাহরণ ১।− সুনির্দিষ্ট কোন কাজ সম্পাদনের দায়িত্ব কোন চুক্তিবদ্ধ পক্ষের উপর বর্তাইবে, বা প্রকল্পের বাস্তবায়ন সময়সূচী প্রভাবিত করে এইরূপ কোন সময়সীমার বাস্তবায়নযোগ্যতা বা সংশ্লিষ্ট কাজের বিষয়বস্তু সম্পর্কে ক্রয়কারী এবং পরামর্শক ঐকমত্যে পৌঁছাইতে ব্যর্থ হইয়াছে।

উদাহরণ ২।− ক্রয়কারী পরামর্শক কর্তৃক প্রদেয় সেবার বিপরীতে প্রকৃত পারিশ্রমিকের হার সম্পর্কে সম্যক অবহিত না থাকিলে, বা পরামর্শক কর্মপরিধির অপব্যাখ্যা করিতে পারে বা প্রাপ্ত বাজেটের তুলনায় ক্রয়কারীর পরিকল্পনা অতিমাত্রায় উচ্চাভিলাষী হইতে পারে; পরামর্শকের নিকট প্রাক্কলিত জনমাস (man-months) এবং ঝুঁকি বন্টন অগ্রহণযোগ্য প্রতীয়মান হইলে পরামর্শক প্রাক্কলিত বাজেটের চাইতে পর্যাপ্তভাবে অধিক মূল্য প্রস্তাব পেশ করিতে পারে।

(২) সকল প্রস্তাব বাতিলের পূর্বে বাজেট বৃদ্ধির অথবা সেবার ব্যাপ্তি সীমিত করিবার সম্ভাব্যতা ক্রয়কারী কর্তৃক যাচাই করা সঙ্গত হইবে ।

(৩) ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান যদি অবশেষে সকল প্রস্তাব বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, তাহা হইলে ক্রয়কারী প্রস্তাবিত কর্মপরিধি ও বাজেট পুনঃমূল্যায়ন করিয়া নন-গ্রহণযোগ্য প্রস্তাব প্রাপ্তির ঝুঁকি হ্রাসের লক্ষ্যে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল (সংক্ষিপ্ত তালিকাসহ) যথাযথভাবে পরীক্ষানিরীক্ষা করিবে।

১২৪। অনুমোদন প্রক্রিয়া।-

(১) প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি সুপারিশসহ মূল্যায়ন প্রতিবেদন এবং সম্পাদিত নিগোসিয়েশনের কার্য বিবরণী বিধি ৩৬ এর বিধান অনুসরণক্রমে অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের নিকট পেশ করিবে।

(২) সরকার কর্তৃক সময় সময় জারীকৃত আর্থিক ক্ষমতা অর্পণ আদেশ অনুসারে অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ, প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক দাখিলকৃত সুপারিশসহ মূল্যায়ন প্রতিবেদন বিবেচনাপূর্বক বিধি ১১ অনুসারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিবে।

(৩) অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ উহার সিদ্ধান্ত ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সকলকে অবহিত করিবে।

১২৫। চুক্তি স্বাক্ষর।-

(১) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি এবং কৃতকার্য পরামর্শক নিগোসিয়েশন সমাপ্ত করিবার জন্য উহার সম্মত কার্যবিবরণী স্বাক্ষর এবং প্রস্তাবিত খসড়া চুক্তিপত্রে অনুস্বাক্ষর করিবে।

(২) ক্রয়কারী, চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমোদন প্রাপ্তির পর, এবং বিধি ৫৭, ৫৯ এবং ৬০ এর অধীন কোন অভিযোগ দায়ের করা না হইয়া থাকিলে বা বিবেচনাধীন না থাকিলে, কৃতকার্য পরামর্শককে চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে;

তবে শর্ত থাকে যে, উক্ত পরামর্শক আমন্ত্রণ প্রাপ্তির পর, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, ক্রয়কারীর অনুকূলে বিধি ২৭ এর উপ-বিধি (১০) অনুসারে জামানত প্রদানপূর্বক, প্রস্তাব দলিলে নির্দিষ্টকৃত চুক্তিপত্রের ছকে স্বাক্ষর করিবেন।”; (খ) উপ-বিধি (৪) এর পরিবর্তে নিম্নরুপ উপ-বিধি (৪) প্রতিস্থাপিত হইবে, যথা:

“(৪) ব্যক্তি পরামর্শককে প্রস্তাব জামানত দাখিল করিতে হইবে না।”

(৩) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল অনুসারে চুক্তির ধরন নির্ধারিত হইবে, যথা, সময়-ভিত্তিক (time based) অথবা থোক চুক্তি (lump-sum)।

(৪) চুক্তি সম্পাদন নোটিশ প্রাপ্ত পরামর্শককে কোনরূপ কার্যসম্পাদন জামানত প্রদান করিতে হইবে না।

(৫) চুক্তির শর্তানুসারে পরামর্শক কর্তৃক সম্পাদিত কাজের মান সন্তোষজনক না হইলে পরামর্শক নিজ খরচে তাহা সম্পাদন, অথবা উহার ফলে ক্রয়কারীর কোন ক্ষতি সাধিত হইয়া থাকিলে উহার ক্ষতিপূরণ প্রদানের বিধান, প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে অন্তর্ভুক্ত করিবার বিষয়াদি ক্রয়কারী নিশ্চিত করিবে।

১২৬। প্রস্তাব প্রক্রিয়ার পরিসমাপ্তি।-

(১) ক্রয়কারী, কৃতকার্য পরামর্শকের সহিত চুক্তি স্বাক্ষরের অব্যবহিত পরে, অন্যান্য যে সকল পরামর্শকের প্রস্তাব কারিগরী মূল্যায়নে গ্রহণযোগ্য বিবেচিত হইয়াছিল তাহাদেরকে অকৃতকার্য হওয়ার বিষয়ে অবহিত করিবে।

(২) প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, ক্রয়কারী উহার ওয়েবসাইটে চুক্তি সম্পাদনকারী পরামর্শকের নাম প্রকাশ করিবে।

(৩) চুক্তিমূল্য তফসিল-২ বর্ণিত পরিমাণের অধিক হইলে, উক্ত চুক্তিসম্পাদন সংক্রান্ত তথ্য তফসিল-৬ এ প্রদত্ত ছকে সিপিটিইউ এর ওয়েবসাইটে প্রকাশ করিতে হইবে।