ষষ্ঠ অধ্যায়

অংশ-৩: প্রস্তাব মূল্যায়ন, নিগোসিয়েশন এবং প্রক্রিয়ার পরিসমাপ্তি 

১১৯। কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়ন ।-

(১) আইন, এই বিধিমালা এবং প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল অনুসারে প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি সকল কারিগরী প্রস্তাব মূল্যায়ন করিবে।

(২) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির কোন সদস্যের সহিত ব্যবসায়িক বা অন্যবিধ ঘনিষ্ঠ স¤পর্কযুক্ত কোন আবেদনকারীর নিকট হইতে প্রস্তাব গৃহীত বা আহবান করা হইলে, স্বার্থের সংঘাত এড়াইবার উদ্দেশ্যে উক্ত সদস্য বা সদস্যদের পরিবর্তে অন্য কোন সদস্য বা সদস্যদেরকে নিয়োগ করিতে হইবে।

(৩) গুনগতমান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন, নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচন, সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির আওতায় মূল্যায়নের প্রথম পর্যায়ে কেবলমাত্র কারিগরী প্রস্তাব সমূহের পরীক্ষণ এবং মূল্যায়ন সম্পন্ন করা হইবে এবং প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা মোতাবেক প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক উক্ত মূল্যায়ন সম্পন্ন করিতে হইবে।

(৪) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি প্রতিটি প্রস্তাব কর্মপরিধির প্রতি রেসপনসিভ কিনা উহার আলোকে মূল্যায়ন করিবে, এবং কোন প্রস্তাব কর্মপরিধির গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমূহ প্রতিপালন না করিলে, বা প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে বর্ণিত ন্যূনতম কারিগরী স্কোর অর্জনে ব্যর্থ হইলে, উক্ত প্রস্তাব বিবেচনার অযোগ্য বা নন-রেসপনসিভ বলিয়া বিবেচিত হইবে, এবং উহা বাতিল করা হইবে।

(৫) কারিগরী প্রস্তাবসমূহ গৃহীত এবং উন্মুক্তকরণের পরে, পরামর্শকদেরকে তাহাদের প্রস্তাবসমূহের সারবস্তু, উহাতে উল্লিখিত প্রধান কর্মীবৃন্দ এবং অন্য কোনরূপ পরিবর্তন সাধন করিবার জন্য নির্দেশ দেওয়া যাইবে না বা পরিবর্তনের অনুমতি প্রদান করা যাইবে না।

(৬) একটিমাত্র প্রস্তাব ন্যূনতম কারিগরী নম্বর অর্জনে সক্ষম হইলে, সেইক্ষেত্রে ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান বা তৎকর্র্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বা অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের (যদি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নীচের ধাপের কর্মকর্তা হন) অনুমোদনক্রমে আর্থিক প্রস্তাব উন্মুক্ত এবং পরীক্ষা করা যাইবে।

(৭) দরপত্র দাখিলের নির্ধারিত তারিখ এবং সময়ে যদি একটিমাত্র প্রস্তাব দাখিল করা হইয়া থাকে, সেইক্ষেত্রে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে উল্লিখিত সময় প্রদান করিয়া সকল সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত আবেদনকারীকে প্রস্তাব দাখিলের জন্য আহবান করা সাপেক্ষে, ক্রয়কারী উক্ত একক প্রস্তাবটিই মূল্যায়ন কমিটির বরাবরে অগ্রবর্তী করিবে।

(৮) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির সকল সদস্য পৃথকভাবে প্রস্তাব মূল্যায়ন করিবেন, অতঃপর প্রত্যেক প্রস্তাবের অনুকূলে কমিটির সদস্যগণ কর্তৃক প্রদত্ত নম্বরের গড় নির্ণয় করিয়া সংশ্লিষ্ট প্রস্তাবের নম্বর নির্ধারণ করিতে হইবে।

(৯) কোন মূল্যায়নকারী কর্তৃক প্রদত্ত নম্বরসমূহের মধ্যে ব্যাপক পার্থক্যের ক্ষেত্রে, কমিটির সভাপতি বিষয়টি বিবেচনায় আনিয়া সংশ্লিষ্ট মূল্যায়নকারীকে তাঁহার প্রদত্ত নম্বরের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যার আহ্বান জানাইবেন –

তবে শর্ত থাকে যে-

(ক) তাঁহার ব্যাখ্যার যৌক্তিক ভিত্তি না থাকিলে তাহার মূল্যায়ন প্রত্যাখ্যান করা হইবে; এবং
(খ) তাঁহার ব্যাখ্যার যৌক্তিক ভিত্তি থাকিলে এবং তিনি উক্ত বিষয়ে একমাত্র অভিজ্ঞ ব্যক্তি বলিয়া প্রতীয়মান হইলে তাঁহাকে সদস্য হিসাবে অন্তর্ভুক্ত করিয়া একটি নূতন প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি গঠন করিতে হইবে ।

(১০) সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়নে বিবেচিত হইবার জন্য প্রয়োজনীয় ন্যূনতম কারিগরী নম্বর অর্জনকারী আবেদনকারীদের চিহ্নিতকরণের উদ্দেশ্যে প্রত্যেক প্রস্তাবে প্রদত্ত কারিগরী নম্বর প্রদর্শনপূর্বক একটি প্রস্তাব মূল্যায়ন প্রতিবেদন প্রণয়ন করিতে হইবে।

(১১) বিধি ৩৬ এর বিধান অনুসরণক্রমে কারিগরী মূল্যায়ন প্রতিবেদন ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান বা তৎকর্র্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের (যদি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নীচের ধাপের কর্মকর্তা হন) নিকট দাখিল করা হইবেঃ

তবে শর্ত থাকে এর বিধান অনুসরণক্রমে কারিগরি যদি ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের উচ্চতর কোন কর্মকর্তা হন তাহা হইলে, বিধি-১০ উপ-বিধি (১) এর দফা (ঘ) এর ব্যতিক্রমে ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের অব্যবহিত নিচের ধাপের কর্মকর্তা প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করিবেন।

১২০। আর্থিক প্রস্তাব মূল্যায়ন।-

(১) ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান বা তাহার নিকট হইতে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অথবা অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ (যদি অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের নীচের ধাপের কর্মকর্তা হন) কর্তৃক কারিগরী মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুমোদনের পর যে সকল আবেদনকারী প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের বর্ণনামতে ন্যূনতম কারিগরী স্কোর অর্জন করিয়াছে, তাহাদিগকে আর্থিক প্রস্তাবের প্রকাশ্য উন্মুক্তকরণ সভায় উপস্থিত থাকিবার জন্য আহ্বান জানানো হইবে।

(২) প্রকাশ্য প্রস্তাব উন্মুক্তকরণ সভায় প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি ন্যূনতম কারিগরী স্কোর অর্জনকারী প্রত্যেক প্রস্তাবের ব্যয় সহকারে প্রাপ্ত কারিগরী স্কোর ঘোষণা করিবে।

(৩) গাণিতিক শুদ্ধতা নিরূপণের জন্য আর্থিক প্রস্তাবসমূহ পরীক্ষা করা হইবে এবং গণনায় কোনরূপ ভুল থাকিলে তাহা আবেদনকারীকে অবহিত করা হইবে।

(৪) কার্যক্রমসমূহের ব্যয় উল্লেখআবশ্যিক হইলে, কারিগরী প্রস্তাবে বর্ণিত কোন কার্যক্রমের ব্যয় উল্লেখ করা না হইয়া থাকিলেও, উক্ত ব্যয় অন্যান্য কার্যক্রমের বা আইটেমে অন্তর্ভুক্ত হইয়াছে বলিয়া ধরিয়া লওয়া হইবে।

(৫) আর্থিক প্রস্তাবে কোন কর্মকান্ড এবং লাইন আইটেমের পরিমাণ কারিগরী প্রস্তাব অপেক্ষা ভিন্নভাবে উল্লেখ করা হইলে, মূল্যায়ন কমিটি আর্থিক প্রস্তাবে প্রদর্শিত উক্ত পরিমাণ এইরূপে সংশোধন করিবে যাহাতে উহা কারিগরী প্রস্তাবের সহিত সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়।

উদাহরণ।− যদি কারিগরী প্রস্তাবে উল্লেখ থাকে যে, দলনেতা কর্ম সম্পাদনের জন্য নির্ধারিত স্থানে ১২ (বার) মাস উপস্থিত থাকিবেন, কিন্তু আর্থিক প্রস্তাবে ৮ (আট) মাসের উল্লেখ রহিয়াছে, এইরূপ ক্ষেত্রে প্রস্তাবিত দর-মূল্যের সহিত বাকী সময়ের আনুপাতিক পারিশ্রমিকের পরিমাণ যোগ করিয়া মূল্য সমন্বয় করা হইবে।

(৬) আবেদনকারী যে সকল পুনর্ভরণযোগ্য আইটেমের মূল্য উল্লেখ করিবে, সেই সকল আইটেম গাণিতিক শুদ্ধতা এবং বিষয়বস্তু উভয় আঙ্গিকেই পরীক্ষিত হইবে এবং যদি ইহা নির্ণীত হয় যে, এমন কোন আইটেম প্রস্তাবে অন্তর্ভুক্ত হইয়াছে যাহা পরামর্শকের প্রয়োজন নাই, সেইক্ষেত্রে উক্ত আইটেম প্রস্তাব হইতে বাদ দেওয়া হইবে এবং আর্থিক মূল্যায়নে তাহা গণ্য করা হইবে না।

উদাহরণ।− পরামর্শক অফিস ভাড়ার পরিমাণ উল্লেখকরিয়াছে অথচ প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে উল্লেখকরা হইয়াছে যে ক্রয়কারী বা ব্যবহারকারী বা উপকারভোগী প্রতিষ্ঠান ইহার সংস্থান করিবে।

(৭) থোক (lump-sump) চুক্তির ক্ষেত্রে আর্থিক প্রস্তাবের কোন সংশোধনী প্রযোজ্য হইবে না।

১২১। গুণগত ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতিতে সম্মিলিত বিবেচনায় কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়ন ।-

(১) নিম্নবর্ণিত উদাহরণ অনুসারে সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়নে কারিগরী স্কোর নির্ধারণ করিতে হইবে –

উদাহরণ।− যদি কোন কারিগরী প্রস্তাব ৯০ নম্বর প্রাপ্ত হয়, এবং তুলনামূলক গুরুত্ব শতকরা ৮০ হইয়া থাকে, সেইক্ষেত্রে উক্ত তুলনামূলক গুরুত্ব প্রয়োগ করত- এই প্রস্তাবের কারিগরী নম্বর হইবে ৯০ এর ৮০% = ৭২

(২) প্রত্যেক প্রস্তাবের আর্থিক স্কোর এইরূপ নির্ধারিত হইবে যে সর্বনিন্ম মূল্যায়িত আর্থিক প্রস্তাবকে ১০০ নম্বর দেওয়া হইবে এবং অন্যান্য প্রস্তাবের ক্ষেত্রে আনুপাতিক ক্রমহ্রাসমান হারে নম্বর দেওয়া হইবে; সর্বনিম্ন আর্থিক প্রস্তাবের তুলনায় যে হারে অন্যান্যদের আর্থিক প্রস্তাব অধিক হইবে, সেই হারে প্রদেয় নম্বর হ্রাস পাইতে থাকিবে।

উদাহরণ।− যদি সর্বনিন্ম আর্থিক প্রস্তাবের দর ১ মিলিয়ন টাকা হয়, তাহা হইলে উহাতে প্রদত্ত আর্থিক নম্বর হইবে ১০০ (সর্ব্বোচ) এবং অতঃপর নির্ণেয় আর্থিক স্কোর হইবে নিম্নরূপ-

প্রস্তাবদরনম্বরগুরুত্বস্কোর
সর্বনিম্ন আর্থিক প্রস্তাবটাকা ১.০ মিলিয়ন১০০২০%২০
পরবর্তী উচ্চতর আর্থিক প্রস্তাবটাকা ১.২ মিলিয়ন৮৩.৩২০%১৬.৬
পরবর্তী উচ্চতর আর্থিক প্রস্তাবটাকা ১.৫ মিলিয়ন৬৬.৬২০%১৩.৩২

(৩) কারিগরী স্কোরের সহিত আর্থিক স্কোর যোগ করিয়া সম্মিলিত স্কোর পাওয়া যাইবে, এবং সর্বোচ্চ সম্মিলিত স্কোর অর্জনকারী পরামর্শককে চুক্তি নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইতে হইবে।

১২২। নিগোসিয়েশন।-

(১) প্রস্তাবসমূহের মূল্যায়ন সম্পাদনের পর প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি-

(ক) গুণগতমান ও ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে, সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়ন প্রতিবেদন পর্যালোচনান্তে সম্মিলিত কারিগরী ও আর্থিক মূল্যায়নে সর্বোচচ স্কোর অর্জনকারী পরামর্শককে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে;
(খ) নির্দিষ্ট বাজেটের অধীন নির্বাচনের ক্ষেত্রে, উক্ত বাজেট সীমার মধ্যে সর্বোচ্চ কারিগরী স্কোর অর্জনকারী পরামর্শককে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে;
(গ) সর্বনিন্ম ব্যয়ভিত্তিক নির্বাচন পদ্ধতির ক্ষেত্রে, কারিগরী যোগ্যতার মানদণ্ডে উত্তীর্ণ সর্বনিন্ম ব্যয় উদ্ধৃতকারী পরামর্শককে নিগোসিয়েশনের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে।

(২) ক্রয়কারী কৃতকার্য পরামর্শককে তাহার প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য হইয়াছে মর্মে অবহিত করিবে এবং চুক্তি নিগোসিয়েশনের জন্য এইরূপ দিন ধার্য করিবে যাহাতে প্রস্তাবের বৈধতার মেয়াদ সমাপ্ত হইবার পূর্বেই চুক্তি বলবৎ হইতে পারে।

(৩) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি চুক্তি স্বাক্ষরের নিমিত্তে কৃতকার্য পরামর্শককের সহিত নেগোসিয়েশনের সময় প্রস্তাবের শুধু নিম্নবর্ণিত বিষয়াদি আলোচনা করিবে –

(ক) কর্মপরিধি বাস্তবায়ন-পদ্ধতি;
(খ) কর্ম পরিকল্পনা এবং বিভিন্ন কাজের বিস্তারিত সময়সূচী;
(গ) সংগঠনকরণ এবং কর্মীবৃন্দ নিয়োজিতকরণ;
(ঘ) প্রশিক্ষণ ইনপুট, যদি প্রশিক্ষণ প্রধান উপাদান হয়;
(ঙ) গ্রাহক বা ক্রয়কারীর ইনপুট;
(চ) সময় ভিত্তিক চুক্তির ক্ষেত্রে পুনর্ভরণযোগ্য ব্যয়; এবং
(ছ) প্রস্তাবিত চুক্তি মূল্য।

(৪) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি জনবলের পারিশ্রমিক হিসাবে উদ্ধৃত দরের বিষয়ে কোন পরিবর্তনের ইচ্ছা প্রকাশ করিবে না অথবা কোন ধরনের পরিবর্তন অনুমোদন করিবেন না, যেক্ষেত্রে আবেদনকারী কর্তৃক প্রস্তাবিত ব্যয় মূল্যায়নে একটি উপাদান হিসাবে ব্যবহৃত হয়।

(৫) মূল্যায়নের সময় যদি প্রতিভাত হয় যে, প্রধান কোন কর্মী প্রস্তাবিত কাজ সম্পাদনে উপযুক্ত নহে, তাহা হইলে প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানকে উক্ত প্রধান কর্মীর স্থলে অন্য কোন উপযুক্ত কর্মী নিয়োজিত করিবার নির্দেশ দিতে পারিবে।

(৬) যদি প্রস্তাবের বৈধতার মেয়াদ বৃদ্ধিই কোন প্রধান কর্মী প্রাপ্তিসাধ্য না হওয়ার কারণ হইয়া থাকে, তাহা হইলে সমতুল্য বা অধিকতর যোগ্যতাসম্পন্ন কোন কর্মীকে তাঁহার স্থলাভিষিক্ত করা যাইবে।

(৭) নিগোসিয়েশনের সময় ক্রয়কারী কর্তৃক প্রদেয় ইনপুট ও সুবিধাদি (inputs and facilities) সুস্পষ্টভাবে নিরূপণ করিতে হইবে।

(৮) নিগোসিয়েশনে কর্মপরিধি সম্পর্কে আলোচনা অন্তর্ভুক্ত থাকিবে, কিন্তু মূল কর্মপরিধিতে কোন ঊল্লেখযোগ্য পরিবর্তন সাধন করা যাইবে না, যাহাতে নিগোসিয়েশনের ন্যায়নিষ্ঠতা এবং কারিগরী মূল্যায়ন প্রতিবেদনের বিষয়বস্তু ও সিদ্ধান্ত সম্পর্কে কোন প্রশ্ন উত্থাপিত না হয়।

(৯) বাজেট বরাদ্দের সঙ্গে সঙ্গতি রক্ষার উদ্দেশ্যে কাজের ইনপুট ঊল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা যাইবে না।

১২৩। নিগোশিয়েশনে ব্যর্থতা এবং সকল প্রস্তাব বাতিলকরণ।-

(১) যদি নিগোসিয়েশন ব্যর্থ হয় এবং সকল প্রস্তাব অনুপযুক্ত ও নন-রেসপনসিভ হয়, তাহা হইলে ক্রয়কারী, ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধানের অনুমোদন গ্রহণপূর্বক নিম্নবর্ণিত কারণে উক্ত প্রস্তাবসমূহ বাতিল করিতে পারিবে –

(ক) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলের বিপরীতে দাখিলকৃত প্র স্তাবে গুরুতর ঘাটতি থাকিলে; এবং
(খ) প্রাক্কলিত বাজেটের চাইতে দাখিলকৃত মূল্য প্রস্তাব ঊল্লেখযোগ্যভাবে অধিক এবং নিগোসিয়েশনের সময় উক্ত পার্থক্য দূর করা সম্ভব না হইলে।

উদাহরণ ১।− সুনির্দিষ্ট কোন কাজ সম্পাদনের দায়িত্ব কোন চুক্তিবদ্ধ পক্ষের উপর বর্তাইবে, বা প্রকল্পের বাস্তবায়ন সময়সূচী প্রভাবিত করে এইরূপ কোন সময়সীমার বাস্তবায়নযোগ্যতা বা সংশ্লিষ্ট কাজের বিষয়বস্তু সম্পর্কে ক্রয়কারী এবং পরামর্শক ঐকমত্যে পৌঁছাইতে ব্যর্থ হইয়াছে।

উদাহরণ ২।− ক্রয়কারী পরামর্শক কর্তৃক প্রদেয় সেবার বিপরীতে প্রকৃত পারিশ্রমিকের হার সম্পর্কে সম্যক অবহিত না থাকিলে, বা পরামর্শক কর্মপরিধির অপব্যাখ্যা করিতে পারে বা প্রাপ্ত বাজেটের তুলনায় ক্রয়কারীর পরিকল্পনা অতিমাত্রায় উচ্চাভিলাষী হইতে পারে; পরামর্শকের নিকট প্রাক্কলিত জনমাস (man-months) এবং ঝুঁকি বন্টন অগ্রহণযোগ্য প্রতীয়মান হইলে পরামর্শক প্রাক্কলিত বাজেটের চাইতে পর্যাপ্তভাবে অধিক মূল্য প্রস্তাব পেশ করিতে পারে।

(২) সকল প্রস্তাব বাতিলের পূর্বে বাজেট বৃদ্ধির অথবা সেবার ব্যাপ্তি সীমিত করিবার সম্ভাব্যতা ক্রয়কারী কর্তৃক যাচাই করা সঙ্গত হইবে ।

(৩) ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান যদি অবশেষে সকল প্রস্তাব বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, তাহা হইলে ক্রয়কারী প্রস্তাবিত কর্মপরিধি ও বাজেট পুনঃমূল্যায়ন করিয়া নন-গ্রহণযোগ্য প্রস্তাব প্রাপ্তির ঝুঁকি হ্রাসের লক্ষ্যে প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল (সংক্ষিপ্ত তালিকাসহ) যথাযথভাবে পরীক্ষানিরীক্ষা করিবে।

১২৪। অনুমোদন প্রক্রিয়া।-

(১) প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি সুপারিশসহ মূল্যায়ন প্রতিবেদন এবং সম্পাদিত নিগোসিয়েশনের কার্য বিবরণী বিধি ৩৬ এর বিধান অনুসরণক্রমে অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষের নিকট পেশ করিবে।

(২) সরকার কর্তৃক সময় সময় জারীকৃত আর্থিক ক্ষমতা অর্পণ আদেশ অনুসারে অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ, প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক দাখিলকৃত সুপারিশসহ মূল্যায়ন প্রতিবেদন বিবেচনাপূর্বক বিধি ১১ অনুসারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিবে।

(৩) অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ উহার সিদ্ধান্ত ক্রয়কারী কার্যালয় প্রধান এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সকলকে অবহিত করিবে।

১২৫। চুক্তি স্বাক্ষর।-

(১) প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি এবং কৃতকার্য পরামর্শক নিগোসিয়েশন সমাপ্ত করিবার জন্য উহার সম্মত কার্যবিবরণী স্বাক্ষর এবং প্রস্তাবিত খসড়া চুক্তিপত্রে অনুস্বাক্ষর করিবে।

(২) ক্রয়কারী, চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমোদন প্রাপ্তির পর, এবং বিধি ৫৭, ৫৯ এবং ৬০ এর অধীন কোন অভিযোগ দায়ের করা না হইয়া থাকিলে বা বিবেচনাধীন না থাকিলে, কৃতকার্য পরামর্শককে চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য আমন্ত্রণ জানাইবে;

তবে শর্ত থাকে যে, উক্ত পরামর্শক আমন্ত্রণ প্রাপ্তির পর, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, ক্রয়কারীর অনুকূলে বিধি ২৭ এর উপ-বিধি (১০) অনুসারে জামানত প্রদানপূর্বক, প্রস্তাব দলিলে নির্দিষ্টকৃত চুক্তিপত্রের ছকে স্বাক্ষর করিবেন।”; (খ) উপ-বিধি (৪) এর পরিবর্তে নিম্নরুপ উপ-বিধি (৪) প্রতিস্থাপিত হইবে, যথা:

“(৪) ব্যক্তি পরামর্শককে প্রস্তাব জামানত দাখিল করিতে হইবে না।”

(৩) প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিল অনুসারে চুক্তির ধরন নির্ধারিত হইবে, যথা, সময়-ভিত্তিক (time based) অথবা থোক চুক্তি (lump-sum)।

(৪) চুক্তি সম্পাদন নোটিশ প্রাপ্ত পরামর্শককে কোনরূপ কার্যসম্পাদন জামানত প্রদান করিতে হইবে না।

(৫) চুক্তির শর্তানুসারে পরামর্শক কর্তৃক সম্পাদিত কাজের মান সন্তোষজনক না হইলে পরামর্শক নিজ খরচে তাহা সম্পাদন, অথবা উহার ফলে ক্রয়কারীর কোন ক্ষতি সাধিত হইয়া থাকিলে উহার ক্ষতিপূরণ প্রদানের বিধান, প্রস্তাব দাখিলের অনুরোধ সম্বলিত দলিলে অন্তর্ভুক্ত করিবার বিষয়াদি ক্রয়কারী নিশ্চিত করিবে।

১২৬। প্রস্তাব প্রক্রিয়ার পরিসমাপ্তি।-

(১) ক্রয়কারী, কৃতকার্য পরামর্শকের সহিত চুক্তি স্বাক্ষরের অব্যবহিত পরে, অন্যান্য যে সকল পরামর্শকের প্রস্তাব কারিগরী মূল্যায়নে গ্রহণযোগ্য বিবেচিত হইয়াছিল তাহাদেরকে অকৃতকার্য হওয়ার বিষয়ে অবহিত করিবে।

(২) প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, ক্রয়কারী উহার ওয়েবসাইটে চুক্তি সম্পাদনকারী পরামর্শকের নাম প্রকাশ করিবে।

(৩) চুক্তিমূল্য তফসিল-২ বর্ণিত পরিমাণের অধিক হইলে, উক্ত চুক্তিসম্পাদন সংক্রান্ত তথ্য তফসিল-৬ এ প্রদত্ত ছকে সিপিটিইউ এর ওয়েবসাইটে প্রকাশ করিতে হইবে।