Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Post Type Selectors

Electronic Reverse Auction

Facebook
Twitter
LinkedIn

বর্তমান সময়ে ব্যবসায়িক বা বানিজ্যিক যোগাযোগ ও সিদ্ধান্ত গ্রহনের ক্ষেত্রে ইলেক্ট্রনিক গূরুত্ব অনেকাংশে বৃধি পেয়েছে। সরকারী ক্রয় কার্যক্রমেও এর প্রভাব দেখা যায়। ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন বা নিলাম পদ্ধতি (electronic reverse auctions: eRA) সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে একটি নতুন এবং বহুল গ্রহনযোগ্য ক্রয় পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে একজন দরপত্রদাতা অন্য দরদাতাদের দখিলকৃত দরের আলোকে অনলাইনে ধাপে ধাপে তার দর কমাতে থাকেন। একটি নির্দিষ্ট সময় পর যার দর সবচেয়ে কম হবে তিনি-ই হবেন সর্বনিন্ম দরদাতা। মোদ্দা কথা, এই পদ্ধতিতে সময়ের সাথে সাথে দর কমতে থাকে।

 

ছবি-১ঃ একটি typical নিলাম

 

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংজ্ঞায় কি আছে ?

Model Law:
United Nations Commission on International Trade Law এর সংজ্ঞায় আছে –
“Electronic reverse auction’ means an online real-time purchasing technique utilized by the procuring entity to select the successful submission, which involves presentation by suppliers or contractors of successively lowered bids during a scheduled period of time and the automatic evaluation of bids.”

The European Union Procurement directives:
“An ‘electronic auction’ is a repetitive process involving an electronic device for the presentation of new prices, revised downwards, and/or new values concerning certain elements of tenders, which occurs after an initial full evaluation of the tenders, enabling them to be ranked using automatic evaluation methods.”

World Bank Procurement Regulations:
An electronic reverse auction (e-auction) is a scheduled online event in which prequalified/registered firms Bid against each other on their price.

 

ইতিহাস

কমার্শিয়াল মার্কেটপ্লেসঃ
১৯৯০ সালের দিক থেকেই আমেরিকা এবং ইউরোপের বেসরসারী প্রিতিষ্ঠানসমূহে প্রধানত রিভার্স অকশন পদ্ধতি জনপ্রিয় হতে শুরু করে। এটা জনপ্রিয় হবার প্রধান কারন-ই ছিল স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে সর্বোত্তম বাজারমূল্যে পণ্য ও সেবা ক্রয়। যতদূর জানা যায়, বেসরসারী ভাবে সর্বপ্রথম এই পদ্ধতিটি FreeMarkets নামক একটি প্রতিষ্ঠান ১৯৯৫ সালে চালু করে। পরে ২০০৪ সালের দিকে অবশ্য প্রতিষ্ঠানটি Ariba নামক আরেকটি প্রতিষ্ঠানের সাথে একীভূত হয়ে যায়। ২০০০ সালের শুরুর দিকে eBay ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতিতে পণ্য ক্রয় শুরু করে।

সরকারি ক্রয়ঃ

USA
২০০০ সালে এসে আমেরিকার সরকারী দপ্তরে এর ব্যবহার শুরু হয়। আমেরিকার ডিপার্টমেন্ট অব ডিফেন্স প্রথম ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতি ব্যবহার করে উদাহরন সৃষ্টি করে। ২০০৩ সালে CIO Magazine এর একটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছিল এই পদ্ধতি ব্যবহারে ইউএসএ’র মার্কেটে ক্রয়কারীদের প্রায় ২০% আর্থিক সাশ্রয় হবে। “FedBid” একটি থার্ড পার্টি ভেনডর যারা অনলাইন প্রকিউরমেন্ট প্লাটফর্ম ব্যবহারের সুযোগ দিয়ে থাকে। ২০০৪ সালের তাদের তথ্য মতে ইউএসএ তে তাদের মাধ্যমে প্রায় ১০ হাজারের বেশি অনলাইন রিভার্স অকশন পদ্ধতিতে ক্রয় সম্পন্ন হয়েছে।

ইউরোপিয় ইউনিয়ন
মার্চ ২০০৪ সালে ইউরোপিয় ইউনিয়ন পার্লামেন্ট ‘consolidated Procurement Directives’ অনুমোদন করে। এর পর-ই আসলে ইউরোপের সরকারী প্রতিষ্ঠানে ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতি চালুর প্রক্রিয়া শুরু হয়। ২০০৬ সালের জানুয়ারির মধ্যে ইউরোপিয় ইউনিয়নভূক্ত সকল দেশে এটা চালুর জন্য নির্দেশনা জারী হয়। এই ডাইরেক্টিভস জারীর পূর্বে আইন ও বিধিতে ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন এর অনেক বিষয় পরিষ্কার করা ছিল না।.

পর্তূগাল
পর্তূগাল ইউরোপিয় ইউনিয়নভূক্ত দেশ। যদিও ২০০৪ সালের ডাইরেক্টিভস অনুযায়ি ২০০৬ সালের মধ্যেই ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতি চালুর কথা ছিল, কিন্তু পর্তূগালে আসলে ২০০৮ সালে Code of Public Procurement (Código dos Contratos Públicos) এর মাধ্যমে ‘পর্তূগীজ ন্যাশনাল ল’ সংশোধনের ফলেই তা সঠিক দিক নির্দেশনা পায়। এখানে ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতির জন্য ২টি ধরণ রাখা হয়ঃ (১) “Concursos Públicos” (open to competition) এবং (২) Concursos Limitados por Prévia Qualificação (a two-phase procedure with an open phase to competition and a restricted phase for short-listed candidates)। ২০১৪ সালের একটি গবেষণায় দেখা যায় পর্তূগালে সরকারী ক্রয়ে বেশির ভাগ-ই (প্রায় ৯৭ ভাগ ক্ষেত্রে) প্রথম ধরনটি বেছে নেয়া হয়েছে।

ইংল্যান্ড
ইউকে ডিপার্টমেন্ট অব কমিনিটিস এন্ড লোকাল গভার্মেন্ট এর আগষ্ট ২০০৬ এ প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ি ইংল্যান্ডের প্রায় ৩৩% স্থানীয় সরকারের অধীন কাউন্সিলসমূহ রিভার্স অকশন পদ্ধতি ব্যবহার করছিল। The (UK) Regional Centre’s of Excellence Procurement Programme (RCEPP) এর তথ্য অনুযায়ি এই পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে তাদের বাজেটে সেভিংস বেশি হচ্ছে।

অস্ট্রেলিয়া
ডিসেম্বর ২০০৬ সালে নিউ সাউথ ওয়েলস ডিপার্টমেন্ট অব কমার্স ‘NSW Government Procurement Guidelines, Reverse Auctions’ জারী করে। এরমাধ্যমেই প্রথমত ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতি চালু হয় এবং এই পদ্ধতিটিকে একটি ইনোভেটিভ পদ্ধতি বলে গূরত্বারোপ করা হয়।

ব্রাজিল
ব্রাজিলে কার্যকর ভাবে ই-প্রকিউরমেন্ট চালু হয় ১৯৯৪ সালে। ২০০০ সালে স্বয়ংক্রিত নিলাম পদ্ধতি বা Electronic Auction (Pregão Eletrônico) এর সূচনা হয়। ComprasNet (Purchasing Portal of the Federal Government) ব্রাজিলে সরকারি ক্রয়ের জন্য একটি বৃহৎ অনলাইন মার্কেটপ্লেস। ২০০৫ সালে Reverse Auction (নিলাম) পদ্ধতিকে আবশ্যপালনীয় পদ্ধতি হিসেবে এবং Electronic Reverse Auction পদ্ধতি কে সবচেয়ে পছন্দনীয় পদ্ধতি হিসেবে বিবেচনা করে আইন প্রণয়ন করা হয়। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন

 

ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতির বিভিন্ন মডেলঃ

ধাপের কথা বিবেচনা করলে ২ ধরনের (যেমনঃ পর্তূগীজ সরকারি ক্রয় বিধিতে আছে)

উন্মুক্ত পদ্ধতিঃ এ প্রক্রিয়ায় ১ ধাপে দরপত্রদাতা নির্বাচন করা হয়। এখানে সবাই অংশ নিতে পারবে। সর্বনিন্ম দরদাতা নির্বাচন হলে পরে তার কারিগরি মূল্যায়ন সম্পন্ন করা হয়।

সীমাবদ্ধ পদ্ধতিঃ এটি ২ ধাপে সম্পন্ন হয়। এখানে প্রথমে অংশগ্রহনকারি দরপত্রদাতাদের সবার কারিগরি মূল্যায়ন সম্পন্ন করা হয়। অতঃপর উত্তীর্ণ দরপত্রদাতারা রিভার্স অকশনে অংশ নিতে পারেন।

দরপত্রে নিলামকালীন প্রক্রিয়ার ধরন বিবেচনা করলে আবার ২ রকমেরঃ

Positional Auction: এই ধরনের নিলামে অংশগ্রহনকারীরা শুধু দরপত্রে তাদের তুলনামূলক অবস্থান দেখতে পাবে। ধরা যাক, একটি দরপত্রে মোট ৪ জন দরপত্রদাতা অংশগ্রহন করেছে। এখন নিলাম শুরু হবার পর একজন দরপত্রদাতা দেখতে পাবেন তার বর্তমান অবস্থান কি – ১ম, ২য়, ৩য় নাকি ৪র্থ। নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত তিনি তার ranking আপডেট করার সুযোগ পাবেন।

Price auction: এই ধরনের নিলামে অংশগ্রহনকারীরা শুধু সর্বনিন্ম দরদাতার দর দেখতে পাবেন। নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত অন্যরা নিজ নিজ দর আপডেট করার মাধ্যমে সর্বনিন্ম দরদাতা হবার সুযোগ পাবেন।

 

বিভিন্ন সফটওয়ার প্লাটফর্ম

ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পরিচালনার জন্য বেসরকারিভাবে অনেকগুলো নামিদামী সেবাদাতা সংস্থা রয়েছে যেমনঃ Ariba, Iasta, Oracle, Orbis Online, Procuri, SAP, VORTAL, ইত্যাদি। বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পরিচালিত হয়ে থাকে, যেমনঃ AuctionAnything.com, eDynaQuote, Epiq (epiqsystems.com), pt.vortal.biz, ইত্যাদি।

এই প্লাটফর্মগুলোতে ২ ধরনের মডেল রয়েছে। Buyer-paid এবং Seller-paid। Buyer-paid মডেল অনুযায়ি প্লাটফর্ম অপারেশন ফি বাবদ অন্যান্য করার খরচ ক্রয়কারী বহন করে আর Seller-paid মডেল অনুযায়ি যাবতীয় খরচ দরপত্রদাতারা বহন করে। এর মাঝামাঝি মডেলও রয়েছে যেখানে ক্রয়কারী এবং দরপত্রদাতারা সবাই খরচ শেয়ার করে ব্যবহার করে।

 

একটি ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন

একটি typical ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন এর ধাপগুলো নিচে ছবির মাধ্যমে দেখানো হলঃ

ছবি-২

 

Case Study (ব্রাজিল)

ব্রাজিলে ComprasNet এর মাধ্যমে পরিচালিত Electronic Reverse Auction কার্যক্রমটি খুব-ই আকর্যণীয় বলে আমার কাছে মনে হয়েছে। তাই কেস স্টাডি হিসেবে ওখানকার ইলেক্ট্রনিক নিলাম প্রক্রিয়াটি তুলে ধরা হল।

একটি ComprasNet নিলাম

ComprasNet সিস্টেমে নিলাম প্রক্রিয়াটি মোট ৩টি ধাপে শেষ হয়।

১। Pre-bidding phase

প্রথমে ক্রয়কারীকে প্রতিটি লটের জন্য রিজার্ভেশন মূল্য (অফিসিয়াল মোট দর) নির্ধারণ করতে হবে। এরপর, ক্রয়কারীকে অন্তত আট কার্যদিবস পূর্বে দরপত্র বিজ্ঞপ্তি এবং দরপত্র দলিল ComprasNet সিস্টেমে প্রকাশ করতে হয়। দরপত্র বিজ্ঞপ্তি স্থানীয় এবং জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশের জন্য সীমা নির্ধারন করা আছে।

২। Bidding phase

Bidding প্রক্রিয়াটিতে মোট ৩টি পর্যায় –

– ১ম পর্যায়ঃ সময় মোট কমপক্ষে ৮ কর্মদিবস,
– ২য় পর্যায়ঃ ৩০ মিনিট,
– ৩য় পর্যায়ঃ সিষ্টেম কর্তৃক নির্ধারিত সময়

প্রতিটি লটের জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমার পূর্বেই আগ্রহী ঠিকাদারদের দরপত্র জমা দিতে হয়। প্রথম অবস্থায় শুধু একটি দর দাখিল করতে হয়। যখন auction শুরু হয় তখন সর্বনিন্ম দর ঘোষণা করা হয় এবং দরপত্র জমাদানকারীরা নতুন দর দাখিল করতে পারে। একজন দরদাতা একাধিক দর দাখিল করতে পারবে এবং তা তার পূর্বের দর থেকে এবং অন্যান্য ঠিকাদারের সর্বশেষ দাখিলকৃত দর থেকেও কম হতে হবে। সিষ্টেমে সর্বশেষ দাখিলকৃত দর-ই শুধু দেখা যায় কিন্তু দর দাখিলকারীর নাম পরিচয় গোপন থাকে। তবে ব্যতিক্রম ক্ষেত্রে, যেমন অনিচ্ছাকৃত ভূল দর বা অত্যাধিক কম দর দাখিল ইত্যাদি ক্ষেত্রে সর্বনিন্ম দর থেকেও বেশি দর দাখিল করা যায়। সফটওয়ারে একটা এলগরিদম তৈরী করা আছে যা নিজে থেকেই এরকম অস্বাভাবিক দর ধরতে পারে এবং এক্ষেত্রে সর্বনিম্ন দর সিষ্টেম থেকে বাতিল করে দেয়া যায়।

৩০ মিনিট ধরে এই অনলাইন নিলাম চলতে থাকে এবং পরে সিষ্টেমে একটি সতর্কবাণী দেয়া হয়।

Ending Rules in Online Auctions

নিলামের ক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ দিক হল নিলাম কিভাবে শেষ হবে। ComprasNet এর বেলায় নিলাম প্রক্রিয়াটি কখন শেষ হবে তা সিষ্টেম randomly নির্ধারণ করে থাকে। এখানে ক্রয়কারী বা দরপত্রদাতাদের কোন হাত থাকে না। ক্রয়কারী শুধু প্রতি বারে কি পরিমান দর কমানো যাবে তা এই ২য় ধাপ শুরুর পূর্বে নির্ধারণ করে দিতে পারেন। প্রথম ৩০ মিনিট শেষ হবার পর ComprasNet সিষ্টেম কর্তৃক নির্ধারিত অতিরিক্ত সময় অনুযায়ি নিলাম শেষ হয়। এভাবে ঠিকাদাররা আক্রমনাত্মক দর দিতে উৎসাহিত হয়।

৩। Post-Bidding phase

Bidding প্রক্রিয়া শেষ হবার পর ক্রয়কারী যাচাই করে দেখেন যে সর্বশেষ দাখিলকৃত দর রিজার্ভেশন মূল্য থেকে কম না বেশি। যদি কম হয় তবে দরদাতাকে দরপত্র দলিলে উল্লেখিত প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জমা দিতে বলা হয়। কাগজপত্র যাচাই করে সঠিক পাওয়া গেলে চুক্তির জন্য নোটিশ দেয়া হয়। যদি সঠিক না পাওয়া যায় তবে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন দরদাতাকে ডকুমেন্ট জমা দিতে বলা হয় এবং তা যাচাই পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হয়। কিন্তু এভাবে যদি সর্বনিম্ন দর রিজার্ভেশন মূল্য থেকে বেশি হয়ে যায় তবে ক্রয়কারী প্রয়োজনে দরপত্র বাতিল করতে পারে অথবা দর নেগোশিয়েশন আহবান জানাতে পারে। দরদাতা নেগোশিয়েশনে রাজী না হলে দরপত্র বাতিল বা পরবর্তী সর্বনিম্ন দরদাতাকে সমস্ত প্রক্রিয়া অনুসরণ করে নেগোশিয়েশনে আহবান করা হয়। যতক্ষন রিজার্ভেশন মূল্য থেকে কম মূল্য না পাওয়া পর্যন্ত তা চলতে থাকে। খুব কম ক্ষেত্রেই রিজার্ভেশন মূল্য থেকে বেশি মূল্যে চুক্তি সম্পন্ন হয় এবং এরূপ ক্ষেত্রে ক্রয়কারীকে special audit এর মুখোমুখি হতে হয়।

 

বাংলাদেশে কি ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতি ব্যবহৃত হয়েছে ?

বাংলাদেশে মোবাইল ফোন অপারেটর কম্পানী গ্রামীন ফোন ইতোমধ্যেই এই পদ্ধতি ব্যবহার করে পণ্য ক্রয় করেছে। এ জন্য তারা গ্লোবাল সফটওয়ার এটলাস ব্যবহার করেছে।

পরিশেষঃ

ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতির সুবিধার পাশাপাশি অসুবিধাও রয়েছে। কিভাবে ব্যবহার হবে তার উপর অনেককিছু নির্ভর করে। তবে, সবচেয়ে বড় যে সুবিধা তা হল মূল্য নেগোশিয়নে সরাসরি অংশগ্রহন ছাড়াই ক্রয়কারি নিলামের observer হিসেবে কাজ করে এবং প্রতি মূহূর্তে প্রতিযোগিতার pattern অবলোকন করতে পারে।

এখন, ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতিতে দরপত্র আহবানের পূর্বে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা প্রয়োজন তা হলঃ

১। Specification নিরপেক্ষ ও সন্দেহমুক্ত হয়েছে কি না ?
২। দরপত্রে প্রতিযোগিতা হবার সম্ভাবনা রয়েছে কি না ?
৩। ইলেক্ট্রনিক মাধ্যম ব্যবহারের জন্য প্লাটফর্মটি উপযোগি কি না ?

কিন্তু দুঃখের বিষয় হল বাংলাদেশের পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইন ও বিধিমালায় এই জনপ্রিয় দরপত্র পদ্ধতিটি এখনও অন্তর্ভূক্ত হয় নাই। পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইন ও বিধিমালায় সর্বশেষ সংশোধনী জারী হবার পর বর্তমানে উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতির সার্বজনীন গ্রহনযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে (বৈদেশিক সাহায্যকারী সংস্থাগুলো কিছু কিছু সংশোধনীর বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করেছে)। এমতাবস্থায়, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত পদ্ধতি হিসেবে ইলেক্ট্রনিক রিভার্স অকশন পদ্ধতিকে বাংলাদেশের ক্রয় আইনে অন্তর্ভূক্ত করা এখন সময়ের দাবী। এতে সামগ্রিক ক্রয়নীতির উজ্জ্বলতা আরো বৃদ্ধি পাবে এতে কোন সন্দেহ নাই।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই লেখকের অন্যান্য লেখা

ai generated, city, new york-8428608.jpg
প্রকিউরমেন্ট বিডি news

টেন্ডারে দাখিলকৃত গ্যারান্টি নগদায়নে ব্যাংকগুলো সহযোগিতা করছে না

টেন্ডারে দরপত্র জামানত (Tender Security) এবং কার্যসম্পাদান জামানত (Performance Security) হিসেবে ব্যাংক গ্যারান্টি জমা দিতে হয়। এই গ্যারান্টির একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ

Read More »
FAQ

ক্রয়কারির চাহিদা অনুযায়ি BG/PG ফেরতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা

ক্রয়চুক্তির অধীন কোন শর্ত পূরণে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ব্যর্থতার কারণে ক্রয়কারী ক্ষতিগ্রস্ত হলে সেক্ষেত্রে ক্রয়কারীর  লিখিত দাবীর প্রেক্ষিতে জামানত ইস্যুকারী ব্যাংক

Read More »
FAQ

ই-প্রকিউরমেন্ট বাস্তবায়নে সফলতার জন্য কি কি প্রয়োজন ?

বড় ধরণের এবং আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পাবলিক প্রকিউরমেন্ট অবশ্যই স্বচ্ছ, দক্ষ এবং জবাবদিহিমূলক হতে হবে। সরকারের ডিজিটাল কাঠামো পরিবর্তিত হতে

Read More »
প্রকিউরমেন্ট বিডি news

বর্তমান বছরেই SPP ব্যবহার করার পরিকল্পনা

Sustainable Development Goal (SDG) এর লক্ষ্যমাত্রা ১২ এবং ১২.৭ অর্জনের প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে বাংলাদেশ পাবলিক প্রকিউরমেন্ট অথরিটি (BPPA) ২০২৪-২০২৫ অর্থবছর

Read More »
Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Post Type Selectors
গ্রাহক হোন

শুধুমাত্র Registered ব্যবহারকারিগন-ই সব ফিচার দেখতে ও পড়তে পারবেন। এক বছরের জন্য Registration করা যাবে। Registration করতে এখানে ক্লিক করুন

ফ্রী রেজিস্ট্রেশন

“প্রকিউরমেন্ট বিডি news”, “সমসাময়িক”, “সূ-চর্চা”, “প্রশিক্ষণ” অথবা “ঠিকাদারী ফোরাম” ইত্যাদি বিষয়ে কমপক্ষে ২টি নিজস্ব Post প্রেরণ করে এক বছরের জন্য Free রেজিষ্ট্রেশন করুণ। Post পাঠানোর জন্য “যোগাযোগ” পাতা ব্যবহার করুণ।

সূচীঃ PPR-08

Scroll to Top